পাইকগাছায় মেধাবী শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা


335 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় মেধাবী শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৬ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় সামসাদ নবী বৃন্ত নামে নবম শ্রেণীর এক মেধাবী শিক্ষার্থী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রোববার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে হৃদয় বিদারক এ ঘটনা ঘটে। সমাপনি ও জেএসসিতে গোল্ডেন এ-প্লাস প্রাপ্ত বৃন্ত বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট, লোনা পানি কেন্দ্র পাইকগাছার উপ-পরিচালক শামসুন নাহারের ছেলে ও পাইকগাছা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, রোববার সকাল ১০টার দিকে বৃন্তর মা অফিসে চলে আসার পর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লোনা পানি কেন্দ্রের দ্বিতল ভবনের বাসাবাড়ীর নিজ কক্ষের দরজা বন্ধ করে ফ্যানের সাথে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে। কিছুক্ষণ পর কাজের বুয়া বৃন্তকে ডেকে তার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজা বন্ধ দেখে অফিসে খবর দেয়। পরে তার মা সহ অফিসের লোকজন বাসায় গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষনা করে। এ খবর জানতে পেরে বৃন্তকে শেষ বারের মত এক নজর দেখতে হাসপাতালে যান উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স ম বাবর আলী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবির উদ্দীন, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, লোনা পানি কেন্দ্রের মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা সৈয়দ লুৎফর রহমান, বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ লতিফুল ইসলাম, শরিফুল ইসলাম, মিজানুর রহমান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোঃ মকবুল হোসেন, ওসি আশরাফ হোসেন, ওসি (তদন্ত) আলমগীর কবির, প্রধান শিক্ষক অপু মন্ডল, লোনা পানি কেন্দ্রের কর্মকর্তা কর্মচারী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও বৃন্তের সহপাঠি সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। বৃন্তের মত মেধাবী শিক্ষার্থীর অকাল মৃত্যুতে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া। বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বৃন্তের মৃতদেহ তার গ্রামের বাড়ী রংপুরের উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়। পিতা-মাতার উপর অভিমান করে আত্মহত্যার এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিক ধারণা করা হচ্ছে।