পাইকগাছায় সড়কের উপর যত্রতত্র মিনিবাস, ইজিবাইক : জনদুর্ভোগ


471 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় সড়কের উপর যত্রতত্র মিনিবাস, ইজিবাইক : জনদুর্ভোগ
মে ৯, ২০১৮ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা (খুলনা) ॥
খুলনার পাইকগাছায় প্রধান সড়কের উপর কয়েকটি স্থানে যত্রতত্র মিনিবাস, ইজিবাইক রাখা ও অসংখ্য তোরন নির্মাণ করায় জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। ছোট-বড় দুর্ঘটনা লেগেই আছে। অবস্থা দৃষ্টে মনে হয় এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করার কেউ নেই।
দেখা গেছে, বছরের পর বছর অসংখ্য মিনিবাস ও ইজিবাইক খুলনা-পাইকগাছা প্রধান সড়কের উপর যত্রতত্র সারিবদ্ধভাবে রাখা হয়। পৌরসভার সরলের তেলের পাম্প থেকে পাইকগাছা হাসপাতাল ক্রস রোর্ড পর্যন্ত কয়েকটি স্থানে বাস ও ইজিবাইক রাখা হচ্ছে। এ ছাড়া গদাইপুর থেকে পাইকগাছা পৌরসভার ডাকবাংলো সম্মুখ পর্যন্ত কমপক্ষে ১০টি তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। যা বলতে গেলে স্থায়ী রূপ নিয়েছে। অনেকে রশিকথা করে বলছে, বাস, ইজিবাইক ও তোরণগুলো প্রধান সড়ক জবর দখল করে নিয়েছে। এর বিরুদ্ধে কথা বলা বা ব্যবস্থা গ্রহণ করার ক্ষমতা কেউ রাখে না। প্রতিনিয়ত এরই কারণে ছোট-বড় দুর্ঘটনা লেগেই আছে। এ ব্যাপারে পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর জানান, দীর্ঘদিন ধরে আমরা বিষয়টি নিয়ে আইনশৃংখলা মিটিং-এ আলোচনা করছি। সিদ্ধান্ত হয়েছে ব্যবস্থা গ্রহণের। এরপরও এখনও পর্যন্ত কিছুই হয়নি। তবে চিঠি দিয়ে দ্রুত এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের জানানো হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ফকরুল হাসান বলেন, দেখা যাক কি করা যায়। দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স.ম. বাবর আলী বলেন, সবকিছু পৌরসভার ভিতরে। এ ব্যাপারে আমার পরিষদের কিছুই করার নেই। আমরা তো সন্ধ্যায় এ পথ দিয়ে চলতে পারি না। স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শেখ মোঃ নুরুল হক বলেন, আমার কর্মীরা কিছু তোরণ নির্মাণ করেছে। কিন্তু অন্যরা কি কারণে তোরণ নির্মাণ করেছে? তবে এ গেটগুলো তো পৌরসভার সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করছে।