পাইকগাছায় ৫২ বছর পূর্বে দাফনকৃত ব্যক্তির লাশ অক্ষত, ফের জানাযা শেষে দাফন


176 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছায় ৫২ বছর পূর্বে দাফনকৃত ব্যক্তির লাশ অক্ষত, ফের জানাযা শেষে দাফন
নভেম্বর ১৭, ২০২০ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস এম আলাউদ্দিন সোহাগ ::

পাইকগাছায় ৫২ বছর পূর্বে দাফনকৃত ব্যক্তির অবিকৃত লাশ উত্তোলন, ফের জানাযা শেষে দাফন।

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে, খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনিতে প্রায় ৫২ বছর পুর্বে দাফনকৃত ব্যক্তির মৃতদেহ অবিকল অবস্থায় রয়েছে। ঐ ব্যক্তির নাম মোঃ বজলুর রহমান। তিনি কপিলমুনির হাবিবনগর মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা। মাদ্রাসার নতুন ভবন নির্মাণের প্রয়োজনে কবরটি অন্যত্র সরানোর সিদ্ধান্তে পরিচালনা পরিষদের অনুমতিক্রমে শুক্রবার কবর খুঁড়লে মরহুমের অবিকৃত লাশটি উদ্ধার হয়। ঐদিন জুম্মাবাদ লাশের ফের জানাযা শেষে অন্যত্র দাফন সম্পন্ন হয়।

মাদ্রাসার পরিচালনা পরিষদের সদস্য ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার ঐতিহ্যবাহী হাবিবনগর মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মোঃ বজলুর রহমানের মৃত্যু হলে ১৯৬৮ সালে মাদ্রাসা চত্ত্বরেই তার দাফন সম্পন্ন হয়। সম্প্রতি মাদ্রাসার নতুন ভবনের অনুমোদন হয়। তবে স্থান সংকটে মাদ্রাসা চত্ত্বর থেকে প্রতিষ্ঠাতার কবরটি অন্যত্র সরানোর সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সে মোতাবেক শুক্রবার সকালে কবরটি খুঁড়ে সেখানে ৫২ বছর আগে দাফনকৃত মোঃ বজলুর রহমানের অবিকৃত লাশটি উদ্ধার হয়। মূহুর্তেই খবর পেয়ে লাশটি এক নজর দেখার জন্য এলাকাবাসীর ভীঁড় বাড়ে। জুম্মাবাদ লাশের ফের জানাযা শেষে অন্যত্র তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

এব্যাপারে কপিলমুনি জাফর আউলিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ হাফেজ মাওঃ আব্দুস সাত্তার বলেন, বিষয়টি তিনিও শুনেছেন এছাড়া ৫২ বছর আগে মৃত মোঃ বজলুর রহমান দুনিয়ায় ভাল কাজ করেছিলেন। যার ফলে এখনও তার লাশ অবিকৃত অবস্থায় রয়েছে। এটা কোন খারাপ লক্ষণ নয়।