পাইকগাছা পৌর নির্বাচন : ব্যস্ত সময় পার করছেন আ’লীগের তিন প্রার্থী


178 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা পৌর নির্বাচন : ব্যস্ত সময় পার করছেন আ’লীগের তিন প্রার্থী
নভেম্বর ২৩, ২০২০ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

পাইকগাছায় উপজেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনের রেশ কাঁটতে না কাঁটতেই শুরু হয়েছে পৌরসভার নির্বাচনী প্রচারনা। আসন্ন নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তবে দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করতে ভোটের আগে মাঠের লড়াইয়ে সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, বর্তমান মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীরসহ একই দলের অন্তত আরো দু’জন। দলীয় মনোনয়ন পেতে চলছে সর্বোচ্চ গ্রুপিং-লবিং। প্রার্থী হিসেবে নিজেদের গ্রহনযোগ্যতার পাশাপাশি তাদের প্রয়োজনয়িতার কথা জেলা নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যে আগামী ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে পাইকগাছা পৌরসভা নির্বাচনের অনুষ্ঠানের কথা ঘোষণা দেয়ায় মূলত ব্যস্ততা বেড়েছে প্রার্থীসহ,কর্মী-সমর্থকসহ ভোটারদের। সব কিছু ঠিক-ঠাক থাকলে আগামী ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে পৌরসভা নির্বাচন। সে অনুযায়ী চলতি মাসের যে কোন দিন ঘোষণা হতে পারে নির্বাচনী তফসিল। সে অনুযায়ী দলীয় প্রতীক পেতে বর্তমান মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীরের পাশাপাশি জোর লবিং করছেন, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য ও সাবেক দু’বারের পৌর কাউন্সিলর শেখ কামরুল হাসান টিপু ও আওয়ামীলীগ নেতা শেখ আনিসুর রহমান মুক্ত। সর্বশেষ গত ২০১৫ সালের পৌর নির্বাচনে শেখ কামরুল হাসান টিপু ও শেখ আনিসুর রহমান মুক্ত মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন চাইলেও শেষ পর্যন্ত সেলিম জাহাঙ্গীর দলীয় মনোনয় পেয়ে নির্বাচিত হন। অন্যদিকে দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান দু’সহোদর। তাদের বিশ্বাস, এবার তাদের মধ্যে থেকেই যে কাউকে মনোনয়ন দেয়া হতে পারে। দু’বারের পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর বলেন, তিনি ফের আশাবাদী দল তাকে তৃতীয় বারের মত মুল্যায়ন করবে। তিনি আরো বলেন, সরকারের পক্ষে দীর্ঘদিন পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কাজ করেছেন। তৃতীয় বারের মত মনোনয়ন পেলে নির্বাচিত হয়ে দীর্ঘ দিনের উন্নয়ন ধারাবাহিকতায় অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজ শেষ করবেন তিনি। আসন্ন পৌর নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রসঙ্গে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য শেখ কামরুল হাসান টিপু বলেন, দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে তিনি শতভাগ আশাবাদী। তারও বিশ্বাস দল এবার তাকে মুল্যায়ন করবে।অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত বলেন, তিনি ১৯৮৮ সাল থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের দল করছেন। পৌর নির্বাচনে ৫ নং ওয়ার্ড থেকে তিনবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। তার বিশ্বাস, দল এবার তাকে মূল্যায়নপূর্বক দলীয় প্রতীক নৌকার মাঝি করবেন। পৌর নির্বাচনের দিন-ক্ষণ যতই ঘণিয়ে আসছে প্রার্থীদের পাশাপাশি ভোটারদের মধ্যেও ততই আলোচনা জোরদার হচ্ছে, কে পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন? তৃতীয় বারের মত সেলিম জাহাঙ্গীর মনোনয়ন পাবেন? নাকি প্রার্থী পরিবর্তন হবে সুন্দরবন উপকূলীয় পাইকগাছা পৌরসভায়? পরিবর্তন আসলে কে পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন শেখ কামরুল হাসান টিপু? নাকি আনিসুর রহমান মুক্ত? তবে দলীয় লবিং-গ্রুপিং থেকে শুরু করে প্রচার-প্রচারণায় শেখ কামরুল হাসান টিপু এগিয়ে রয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে। যাই হোক দেখা যাক কে পান দলীয় মনোনয়ন। তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে সেই প্রতিক্ষীত সময় পর্যন্ত।

#