পাইকগাছা সংবাদ ॥ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ওসি আশরাফের পদক্ষেপ


387 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ওসি আশরাফের পদক্ষেপ
সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস.এম. আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা ॥
খুলনার পাইকগাছায় মাদক, জুয়া, নাশকতা সৃষ্টিকারী ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন ওসি মোঃ আশরাফ হোসেন। কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমকে জোরদার করাসহ নান্দনিক বিভিন্ন পদক্ষেপে বর্তমানে এলাকার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। যোগদানের পর গত আড়াই মাসে তিনি ৪৫০জন অপরাধীকে আটক, লাইসেন্সবিহীন মটরসাইকেল জব্দ, অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ মাদক দ্রব্য উদ্ধার করেছেন। আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় ওসি আশরাফ হোসেনের নান্দনিক পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

সূত্র মতে, গত ১৬ জুন’১৫ জেলার সুন্দরবন সংলগ্ন গুরুত্বপূর্ণ পাইকগাছা থানায় অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করেন মোঃ আশরাফ হোসেন। যোগদানের পরেই তিনি মাদক, জুয়া, নাশকতা সৃষ্টিকারী ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেন। আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশী কাজে সহায়ক হিসাবে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমকে জোরদার করার উদ্যোগ নেন। ইতোমধ্যে ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার মধ্যে ৬টি ইউনিয়ন কমিটির সাথে মতবিনিময় করেছেন। কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামকে জোরদার করার সুফল হিসাবে উপজেলা সদরসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে বর্তমানে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। যোগদানের পর গত আড়াই মাসে ৪৫০জন মাদকসেবী জুয়াড়ী, ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী ও সন্ত্রাসীকে আটক করা হয়েছে। একই সময় ২০ ব্যক্তিকে জরিমানা, ২৭ জনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা ও ৬জনকে জেলপ্রদান করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে একটি দেশী তৈরী পিস্তল, একটি দেশী তৈরী পাইপগান, একটি দেশী তৈরী ওয়ান সুটারগান, রাইফেল ও বন্দুকের গুলি। ১৭১ বোতল ফেনসিডিল, ১৯৮০ পিচ ইয়াবা, ৩৮০ গ্রাম গাঁজা ও ১ লিটার দেশী মদ। এছাড়াও প্রতিদিন পাইকগাছা কলেজ, হাসপাতাল রোড, ব্রীজ রোড, মধুমিতা পার্কসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থান সমূহে এস,আই জহুরুল ইসলামের নেতৃত্বে সাদা পোষাকধারী পুলিশের অভিযান অব্যাহত থাকায় এলাকা থেকে উধাও হয়ে গেছে ইভটিজার ও বখাটেরা।

জব্দ করা হয়েছে কাগজপত্রবিহিন অসংখ্য মটরসাইকেল। এ ব্যাপারে পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর জানান, বর্তমান ওসি যোগদানের পর পৌর এলাকার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি যথেষ্ঠ উন্নতি হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স.ম. বাবর আলী জানান, ওসির নান্দনিক পদক্ষেপে এলাকার সার্বিক আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। বিশেষ করে মাদক এবং জুয়াড়ীদের বিরুদ্ধে ওসির পদক্ষেপ প্রশংসনীয়। ওসি আশরাফ হোসেন জানান, প্রতিটি নাগরিকের জানমালের নিরাপত্তা বিধান করা পুলিশের নৈতিক দায়িত্ব। কিন্তু জনসংখ্যার আনুপাতিক হার অনুযায়ী পুলিশের সংখ্যা পর্যাপ্ত না হওয়ায় আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। সে কারণে পুলিশী কাজের সহায়ক হিসেবে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমকে জোরদার করার উদ্যোগ নিয়েছি। ইতোমধ্যে কয়েকটি ইউনিয়ন কমিটির সাথে মতবিনিময় করার পর অনেক সুফল এসেছে। আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
##
পাইকগাছায় শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্ঠমীর মাঙ্গলিক শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্ঠমী উপলক্ষে মাঙ্গলিক শোভাযাত্রা, প্রসাদ বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

05.09.15উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে এক মাঙ্গলিক শোভাযাত্রা পৌর সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সরল কালিবাড়ী কেন্দ্রীয় পূজা মন্দির চত্ত্বরে উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমিরণ সাধুর সভাপতিত্বে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবিরউদ্দীন, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, ওসি (তদন্ত) শ্যামলাল নাথ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশীদুজ্জামান, অধ্যক্ষ মিহির বরণ মন্ডল, কাউন্সিলর কবিতা রাণী দাশ, সাবেক কাউন্সিলর শেখ কামরুল হাসান টিপু, ইউপি সদস্য ইতিকা চক্রবর্তী, আনন্দ মোহন বিশ্বাস, বিজন বিহারী সরকার, রবীন্দ্রনাথ রায়, তৃপ্তি রঞ্জন সেন, জগদীশ রায়, দেবব্রত রায়, প্রাণকৃষ্ণ দাশ, এ্যাডঃ অজিত কুমার, সন্তোষ কুমার সরদার, সুভাষ বিশ্বাস, অখিল মন্ডল, সুভাষ সানা মহিম, সুকৃতি সরকার, মুরারী মোহন সরকার, কৃষ্ণপদ মন্ডল, বাবুরাম মন্ডল, পিযুষ সাধু, গৌরপদসহ পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
##

পাইকগাছায় ওয়াপদার ভেড়িবাঁধে ভয়াবহ ভাঙ্গন : স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে মেরামতের চেষ্টা
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের ২২ নং পোল্ডারের ওয়াপদার ভেড়িবাঁধে ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। গত ৩ দিন শত শত এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ঝুকিপূর্ণ বাঁধটি মেরামতের প্রাণপণ চেষ্টা করছে। এদিকে শনিবার ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স.ম. বাবর আলী ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবিরউদ্দীন। ঝুকিপূর্ণ বাঁধটি যেকোন মুহুর্তে ধ্বসে গিয়ে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হতে পারে বলে এলাকাবাসী আশংকা করছে। উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার দেলুটি ইউনিয়নের দারুনমল্লিক স্লুইচ গেট সংলগ্ন ২২নং পোল্ডারের ওয়াপদার ভেড়িবাঁধের ২শ ফুট এলাকা জুড়ে ৬০ ফুট বাঁধের অংশ বিশেষ নদী গর্ভে বিলীন হয়ে বাঁধটি চরম ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। ৫ শতাধিক এলাকাবাসী গত ৩ দিন স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে প্রাণপণ মেরামতের চেষ্টা করে চলেছেন। ইউপি চেয়ারম্যান সমর কান্তি হালদার জানান, বাঁধটি যেকোন মুহুর্তে ধ্বসে যেতে পারে। এতে এলাকার ১৩টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির আশংকা রয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে বলে উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স.ম. বাবর আলী জানান।

পাইকগাছায় যাতায়াতের পথ বন্ধ ও বসত বাড়ী ভাংচুরের অভিযোগ
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় প্রতিবেশি প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বসতবাড়ীর জায়গা জোরপূর্বক দখল, যাতায়াতের পথ বন্ধ ও বসতবাড়ী ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী দিপংকরগংরা প্রতিপক্ষ জগদীশ চন্দ্র সানা গংদের বিরুদ্ধে সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) বরাবর লিখিত অভিযোগ করে।
প্রাপ্ত অভিযোগে জানাগেছে, উপজেলার সোলাদানা ইউনিয়নের পারিশামারী গ্রামের পুলিন কৃষ্ণ সানার ছেলে দিপংকর সানাগংরা খালিয়া মৌজায় এসএ ১৯ খতিয়ানের বিভিন্ন দাগে ০.৭২ একর সম্পত্তির একর সম্পত্তির উপর বসতবাড়ী নির্মাণ করে শান্তিপূর্ণভাবে ভোগদখল করে আসছে। উক্ত সম্পত্তির উপর দিয়ে যাতায়াতের একমাত্র পথ প্রতিবেশি প্রতিপক্ষ মৃত ভূষন চন্দ্র সানার পুত্র এবং পুত্রবধুরা ছেলে জগদিশ সানা, দুলাল সানা, হরিপদ সানা, বিধান চন্দ্র সানা, অলোক সানা, বাপ্পি সানা, সুমতি সানা, অরুনা সানা, শিউলি সানা ও ভক্তি সানাসহ তাদের লোকজন বন্ধ করে দিলে দু’পক্ষের বিরোধ দেখা দেয়। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষরা গত মঙ্গলবার দিপংকর গংদের বসতবাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে। বর্তমানে জগদীশ সানা গংরা বিভিণœ হুমকি প্রদান করায় দিপংকরগংদের পরিবারের লোকজন নিরাপত্তা নিয়ে আশংকা প্রকাশ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।