পাইকগাছা সংবাদ ॥ দুই বছর বন্ধ রয়েছে সরকারি খাঁস জমি একসনা বন্দোবস্ত কার্যক্রম


291 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ দুই বছর বন্ধ রয়েছে সরকারি খাঁস জমি একসনা বন্দোবস্ত কার্যক্রম
মে ৯, ২০১৬ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা (খুলনা) থেকে :
পাইকগাছায় গত দুই বছর বন্ধ রয়েছে সরকারি খাঁস জমি একসনা বন্দোবস্ত কার্যক্রম। ফলে একদিকে প্রতি বছর অর্ধকোটি টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার এবং ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে শত শত দরিদ্র পরিবার। অপরদিকে সরকারি সম্পত্তি প্রভাবশালী ও ভূমি দস্যুদের দখলে চলে যাওয়ায় ধীরে ধীরে খাস জমির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এ অবস্থায় জরুরী ভিত্তিতে বন্দোবস্ত কার্যক্রম চালু করার দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী।
উল্লেখ্য উপজেলায় প্রায় ৩ হাজার একর একসনা বন্দোবস্ত যোগ্য কৃষি খাস জমি রয়েছে। যার মধ্যে ইতোপূর্বে প্রায় ২ হাজার একর জমি গরীব, দুস্থ, অসহায় ও ভূমিহীন পরিবারের মাঝে বন্দোবস্ত দেওয়া হয়। বন্দোবস্ত কার্যক্রম ২০১২-১৩ অর্থবছর পর্যন্ত চলমান থাকলেও ২০১৩-১৪ অর্থ বছর থেকে অজ্ঞাত কারণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বন্দোবস্ত ও নবায়ন কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। ফলে এক দিকে প্রতি বছর সরকার অর্ধ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় থেকে বঞ্চিত রয়েছে। অপরদিকে দীর্ঘদিন বন্দোবস্ত কার্যক্রম বন্ধ থাকায় সরকারি কৃষি খাস জমি চলে যাচ্ছে প্রভাবশালী ও ভূমিদস্যুদের নিয়ন্ত্রণে। এতে সবচেয়ে বেশি দূর্ভোগে পড়েন দরিদ্র ও গরীব শ্রেণির মানুষেরা। শত শত পরিবার কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত নিয়ে চাষাবাদ করার মাধ্যমে পরিবারের জীবিকা নির্বাহ করতো। হঠাৎ করে বন্দোবস্ত কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়ায় সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। সরকারের রাজস্ব ও সাধারণ মানুষের দূর্ভোগের কথা বিবেচনায় নিয়ে বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুল আমিন যোগদানের পর বন্ধ থাকা বন্দোবস্ত কার্যক্রম চালু করার ব্যপারে উদ্যোগ নেয়। বিষয়টি গত ১৯/৪/২০১৬ ইং তারিখ উপজেলা পরিষদের সাধারণ সভায় উত্থাপিত হলে কার্যক্রম পূণঃ চালুকরার ব্যাপারে জেলা প্রসাশকের দৃষ্টি আকর্ষণ সহ সদয় নির্দেশনার জন্য পত্র প্রেরণের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। এ ব্যাপারে ইউএনও আবুল আমিন জানান, একসনা বন্দোবস্ত কার্যক্রম সাতক্ষীরা সহ পাশ্ববর্তী সব জেলায় চলমান রয়েছে। গত দুবছর কার্যক্রম বন্ধ থাকায় সরকার ইতোমধ্যে বিপুল পরিমান রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়েছে। অপরদিকে সরকারি খাস সম্পত্তির উপর সরকারের নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখা সহ সাধারণ মানুষের দূর্ভোগের কথা বিবেচনায় নিয়ে উপজেলা পরিষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসক বরাবর পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত জেলা প্রশাসক মহাদয়ের নির্দেশনা পেলেই দ্রুত সময়ের মধ্যেই পুনঃরায় একসনা বন্দোবস্ত কার্যক্রম চালু করা সম্ভব হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। অবিলম্বে একসনা বন্দোবস্ত কার্যক্রম চালু করণের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিবেন এমনটাই  প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।
##
পাইকগাছা উপজেলা ভূমি কমিটির ত্রৈ-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত
এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা (খুলনা) থেকে ॥
পাইকগাছা উপজেলা ভূমি কমিটির ত্রৈ-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে উত্তরণ পাইকগাছা কেন্দ্রে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক জিএম আজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, সহ-সভাপতি পারুল রানী মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ শেখ আব্দুর রশিদ, যুগ্ম-সম্পাদক শেখ আব্দুল হান্নান, এ্যাডঃ রেখা রানী বিশ্বাস, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক ময়নুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডঃ সেলিনা আক্তার, মোঃ আব্দুল আজিজ, আসমা বেগম ও উত্তরণের কেন্দ্র ব্যবস্থাপক লোকমান হাকিম। সভায় উপজেলায় বন্ধ থাকা কৃষি খাস জমি একসনা বন্দোবস্ত কার্যক্রম পূণরায় চালু করণের উদ্যোগ গ্রহণ করায় উপজেলা কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সবাইকে ধন্যবাদ জানানো হয়।