পাইকগাছা সংবাদ ॥ দু’দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ শিশু ইয়াসিনের


264 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ দু’দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ শিশু ইয়াসিনের
অক্টোবর ১৪, ২০১৬ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি :
পাইকগাছা থেকে নিখোঁজ শিশু ইয়াসিন (৭) এর গত দু’দিনেও সন্ধান পাওয়া যায়নি। তার সন্ধান চেয়ে শুক্রবার সকালে পরিবারের পক্ষথেকে এলাকায় মাইকিং করা হয়েছে। নিখোঁজ ইয়াসিন পাইকগাছা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড বাতিখালী গ্রামের ভ্যান চালক জাহাঙ্গীর গাজীর ছেলে। ‘মা’ মালেকা বেগম জানান, বুধবার রাত ৮টার দিকে শিশুপুত্র ইয়াসিন কাউকে কিছু না জানিয়ে বাড়ী থেকে বেরিয়ে পড়ে। এ সময় তার পরণে ছিল, লাল চেকের জামা, ফুল প্যান্ট এবং পায়ে ছিল কমলা রংয়ের স্যান্ডেল। পরে গত দু’দিন বিভিন্ন স্থানে খোঁজা খুজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে কোন স্বহৃদয়বান ব্যক্তি তার সন্ধান পেলে ০১৭৯৪-০৭২৮৭৮ মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন পিতা জাহাঙ্গীর গাজী।

###
পাইকগাছায় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করায় ৫ মন্দির কমিটির জরুরী সভা
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি :
পাইকগাছা পৌরসভার বাতিখালী হরিতলা মন্দির কমিটির সভাপতি গৌতম কুমার মন্ডল ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কৃষ্ণপদ মন্ডলের বিরুদ্ধে ৫ মন্দির কমিটির সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জরুরী সভা করেছেন কমিটির নেতৃবৃন্দ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সরল কালিবাড়ী উপজেলা কেন্দ্রীয় পূজা মন্দির চত্ত্বরে মন্দির কমিটির সভাপতি দেবব্রত রায়ের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর। উপস্থিত ছিলেন, জেলা পূজা পরিষদ নেতা এ্যাডঃ অজিত কুমার মন্ডল, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ রায়, সাধারণ সম্পাদক তৃপ্তি রঞ্জন সেন, ষোলআনা ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এ্যাডঃ মোর্তজা জামান আলমগীর রুলু, প্যানেল মেয়র এসএম ইমদাদুল হক, সাবেক প্যানেল মেয়র শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত, কাউন্সিলর এসএম তৈয়েবুর রহমান, গাজী আব্দুস সালাম, রবি শংকর মন্ডল, পৌরসভা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি সন্তোষ কুমার সরদার, কাঁকড়া ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি অধিবাস সানা, সাংবাদিক প্রকাশ ঘোষ বিধান, শ্রমিক নেতা শেখ মিথুন মধু, মনোহর চন্দ্র সানা, জগদীশ চন্দ্র রায়, মৃত্যুঞ্জয় সরদার, অখিল মন্ডল, শ্যামপদ মন্ডল, অনুকূল ব্যনার্জী, শংকর মন্ডল, পঙ্কোজ মন্ডল, সুভাষ মন্ডল, সুভাষ সানা, পঙ্কোজ সানা, অমরেন্দ্রনাথ মন্ডল, রণজিৎ মন্ডল, তুষার কান্তি মন্ডল ও দিপঙ্কর মন্ডল সহ ৫ মন্দির কমিটির সভাপতি, সম্পাদক ও বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। এ ব্যাপারে দেবব্রত কুমার রায় জানান, সদ্য সমাপ্ত শারদীয়া দুর্গোৎসব উপলক্ষে সরল কালিবাড়ী উপজেলা কেন্দ্রীয় পূজা মন্দির, বাজার সার্বজনীন পূজা মন্দির, শিববাটী সার্বজনীন পূজা মন্দির, সরল দাশ পাড়া পূজা মন্দির, শিববাটী পূর্বপাড়া পূজা মন্দির ও বাতিখালী হরিতলা পূজা মন্দির সহ পৌরসভার ৬ মন্দির কমিটি বিভিন্ন ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেয়। পূজা শেষে বিসর্জন এবং পূজা পরবর্তী বিভিন্ন অনুষ্ঠান বাতিখালী হরিতলা মন্দির কমিটির সভাপতি গৌতম কুমার মন্ডল ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কৃষ্ণপদ মন্ডল একক ভাবে উপেক্ষা করে, যা নিয়ে ৫ মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে বৃহস্পতিবারের জরুরী সভায় এ দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। এ ব্যাপারে গৌতম কুমার মন্ডল ও কৃষ্ণপদ মন্ডলের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি।

###