পাইকগাছা সংবাদ ॥ পাইকগাছায় বিরোধপূর্ণ মিনহাজ নদীর মাছ লুটপাটের অভিযোগ : এলাকাবাসীর বিক্ষোভ


562 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ পাইকগাছায় বিরোধপূর্ণ মিনহাজ নদীর মাছ লুটপাটের অভিযোগ : এলাকাবাসীর বিক্ষোভ
জুলাই ২৩, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা :
খুলনার পাইকগাছায় বিরোধপূর্ণ মিনহাজ নদীর মাছ লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ইজারাদারের লোকজন প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে। সর্বশেষ বিষয়টি নিরসনে থানা পুলিশ উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা গেছে।
জানাগেছে, উপজেলার গড়ইখালীর নুরপুর-আমিরপুর, ওড়াবুনিয়া, কেওড়াতলা ও খড়িয়া ঢেমসাখালী মৌজায় ২৫১ একর আয়তনের বদ্ধ মিনহাজ নদীটি পাতড়াবুনিয়া গ্রামের মৃত শমসের গাইনের ছেলে কেরামত আলী গাইন ইজারা গ্রহণ করে  দু’শতাধিক এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে বিগত ৬ বছর যাবৎ লীজ ঘের করে আসছে। পথিমধ্যে চলতি মাসের প্রথম দিকে ইউপি সদস্য আব্বাস মোল্লা, সালাম গাজী ও এনামুল, রব গংরা ১৫ দিনের জন্য খাস আদায়ের  ইজারা নিয়ে কেরামত গংদের অনুকুলে থাকা জলাকর থেকে মাছ লুটপাট করলে দু’পক্ষের মধ্যে চরম বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে দুুপক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি মামলা হয়। সর্বশেষ প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে কেরামত গংদের লোকজন বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা সদরে বিক্ষোভ করলে থানার ওসি আশরাফ হোসেন দুপুরের দিকে  দু’পক্ষকে নিয়ে  নিরসন বৈঠক করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাাস, ইউপি সদস্য গাজী মিজান, জয়দ্রথ বাছাড়সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। এ রিপোর্ট লেখাপর্যন্ত  নিরসন বৈঠক চলছিলল।
###

পাইকগাছা উপজেলা লিগ্যাল এইড কমিটির দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত :
পাইকগাছা প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছা উপজেলা লিগ্যাল এইড কমিটির দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে  উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স.ম. বাবর আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা শিক্ষা অফিসার নরেন্দ্রনাথ মৈত্র, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এএইচএম জাহাঙ্গীর আলম, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান, এস,আই কাজী মাসুম, সাংবাদিক আব্দুল আজিজ ও রূপান্তরের সুপারভাইজার চন্দন বিন রহিম।
###

পিতার কবরের পাশে শায়িত হলেন ডাঃ আব্দুর রহিম :
পাইকগাছা প্রতিনিধি :
ঢাকার পিজি হাসপাতালের ভুতপুর্ব সার্জন, খুলনার মডার্ণ মিশু ক্লিনিকের মালিক বিশিষ্ঠ শল্য চিকিৎসক ও বিএনপি নেতা ডাঃ মোঃ আব্দুর রহিম এফসিপিএস (সার্জারী) এর জানাজা গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় পাইকগাছার কমলাপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে। কমলাপুর মাদরাসা প্রাঙ্গনে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে পিতার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়েছে। মরহুমের জানাজায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য এড. সোহরাব আলী সানা, পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এড. স ম বাবর আলী, থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক এড. আবু সাঈদ, জেলা বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ মোঃ আব্দুল মজিদ, পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক এটিএম মনিরুজ্জামান মনি, আধ্যাপক জি এম আজহারুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য জি এম ইকরামুল ইসলাম ও এস এম রেজাউল হক, জেলা বিএনপি নেতা আসলাম পারভেজ, মরহুমের ভাই আব্দুল হামিদ, এড. আব্দুল মজিদ, আব্দুল কুদ্দুস, এড. আহসানুর রহমান (হাসান), মরহুমের পুত্র মোস্তফা কায়ুম আজম নিপু, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্ঠান ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব তৃপ্তি রঞ্জন সেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদল সভাপতি তুষার কান্তি মন্ডল, জাসস নেতা টুকু, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জি এম কামরুল হাসান, ইউপি সদস্য মুজিবর রহমান, খুলনা, সাতক্ষীরা ও গোপালগঞ্জের বিভিন্ন ক্লিনিক মালিকগণসহ এলাকার শতশত মুসল্লী। গত বুধবার বিকাল ৫ টায় খুলনার নিজস্ব বাসভবন মডার্ণ মিশু ক্লিনিকে ডাঃ মোঃ আঃ রহিম মৃত্যু বরন করেন। তাঁর মা, ১ পুত্র, পুত্রবধু, ৪ ভাই ও ১ বোনসহ বহুগুণগ্রাহী আত্মীয়স্বজন রয়েছে। উল্লেখ্য ২০০৭ সালের ১৮ অক্টোবর মরহুমের স্ত্রী, বড় ও মেজ পুত্র মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। আজ (শুক্রবার) জুম্মাবাদ পাইকগাছার কেন্দ্রীয় থানা মসজিদ, কোর্ট মসজিদ, হাসপাতাল মসজিদ ও গ্রামের বাড়ি কমলাপুরের ৩টি মসজিদে মরহুমের দোয়া অনুষ্ঠিত হবে।