পাইকগাছা সংবাদ ॥ ওয়াপদার বেড়িবাঁধে ফের ভয়াবহ ভাঙ্গন


1068 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ ওয়াপদার বেড়িবাঁধে ফের ভয়াবহ ভাঙ্গন
আগস্ট ৫, ২০১৬ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম,আলাউদ্দিন সোহাগ,পাইকগাছা :
পাইকগাছায় অস্বাভাবিক জোয়ারের স্রোতে আবারও দেলুটির ২২নং পোল্ডারের ওয়াপদার বেড়িবাঁধে ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের তত্ত্বাবধায়নে এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ভ্ঙ্গান কবলিত বাঁধটি প্রাথমিক মেরামত করেছে। একই সাথে খবর পেয়ে ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন পাউবো’র উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, উপজেলার দেলুটি ইউনিয়নের ২২নং পোল্ডারের দারুণমল্লিক এলাকার ওয়াপদার বেড়িবাঁধে গত কয়েক মাস আগে ভাঙ্গন দেখা দেয়। বাঁধ মেরামতে পাউরো’র কর্তৃপক্ষ তেমন কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় স্থানীয় এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে কোন রকমে মেরামত করলেও ঝুকিপূর্ণ থেকে যায় ভাঙ্গন এলাকার কয়েকশফুট বাঁধ। এদিকে অমাবশ্যার প্রভাবে বৃহস্পতিবার ভদ্রা নদীর প্রবল জোয়ারের স্রোতে ঝুকিপূর্ণ বাঁধে বেশ কিছুটা অংশ ধ্বসে পড়লে ইউপি চেয়ারম্যান রিপন কুমার মন্ডলের তত্বাবধায়নে এলাকাবাসী ভাঙ্গন কবলিত বাঁধটি প্রাথমিক মেরামত করে। খবর পেয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পীযুষ কু-, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী বিশ্বজিৎ বৈদ্য ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করে বাঁধ মেরামতে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণে এলাকাবাসীকে আশস্ত করেন। এলাকাবাসীর দাবী শুধু আশস্তই নয়, মেরামতে দ্রুত বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নিতে হবে। তা না হলে বাঁধটি সম্পূর্ণ ভেঙ্গে গেলে বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশংকা রয়েছে।
###

পাইকগাছায় জরাজীর্ণ ২০ কিঃমিঃ সড়ক পিএমপি প্রকল্পে অর্šÍভূক্তি সহ জরুরী সংস্কারে লেটার প্রদান
পাইকগাছা প্রতিনিধি  :
পাইকগাছা-খুলনা সড়কের কপিলমুনি থেকে আলমতলা পর্যন্ত     ২০ কিঃমিঃ সড়ক পিএমপি প্রকল্পে অর্šÍভূক্তি সহ জরুরী সংস্কারের জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হক সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহা-সড়ক বিভাগের সচিব বরাবর উপ-আনুষ্ঠানিক পত্র (ডি/ও লেটার) দিয়েছেন। এমপি নূরুল হক বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সচিব এমএএন সিদ্দিক এর নিকট (ডি/ও লেটার) প্রদান করেন। উল্লেখ্য, এলাকার সবচেয়ে জনগুরুত্বপূর্ণ প্রধান এ সড়কের ২০ কিঃমিঃ রাস্তা দীর্ঘ দিন সংস্কারের অভাবে জরাজীর্ণ হয়ে পড়ে। চলতি বর্ষা মৌসুমে সড়কের অসংখ্য স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে হাটু পানি জমে যানবাহন চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। প্রতি নিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা।

05.08.16
চলাচলে চরম আকারে বেড়েছে সাধারণ মানুষের দূর্ভোগ। সড়কটি সংস্কারের দাবীতে ইতোমধ্যে পাইকগাছা নাগরিক কমিটি পালন করেছে মানববন্ধন কর্মসূচী। এরআগে স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হক সংস্কারের ব্যাপারে জাতীয় সংসদে সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের একাধিকবার দৃষ্টি আকর্ষন করেন। অবশেষে সাধারণ মানুষের দূর্ভোগের কথা বিবেচনায় নিয়ে জন গুরুত্বপূর্ণ সড়কের ২০ কিঃমিঃ রাস্তা পিএমপি প্রকল্পে অর্ন্তভূক্ত সহ জরুরী মেরামতের জন্য সড়ক পরিবহন ও মহা সড়ক বিভাগের সচিব বরাবর (ডি/ও লেটার) প্রদান করায় স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হককে অভিনন্দন জানিয়েছেন নির্বাচিত এলাকার সর্ব সাধারণ।
###

পাইকগাছায় ডাকাতি মামলার আসামীকে রিমান্ড শেষে আদালতে সোপর্দ

পাইকগাছা  প্রতিনিধি :
পাইকগাছায় ব্যবসায়ীর বাড়ীতে ডাকাতি ও হামলার ঘটনায় আটক আসামীকে ২ দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে পাঠানো হয়েছে। রিমান্ডে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়াগেছে বলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জানিয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২৭ জুলাই উপজেলা গদাইপুর ইউনিয়নের হিতামপুর গ্রামের নার্সারী ব্যবসায়ী সুকুমার অধিকারীর বাড়ীতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। সংঘবদ্ধ ডাকাতদের হামলায় বাড়ীর মালিক সুকুমার গুরুতর আহত হয়।

এ ঘটনায় পরের দিন আহত সুকুমারের ছেলে দিপঙ্কর অধিকারী বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামী করে থানায় মামলা করে। মামলায় থানা পুলিশ চট্টগ্রামের পুঁটিয়া থানার কচুয়াই গ্রামের মৃত আব্দুল হালিমের ছেলে (গদাইপুর এলাকার ভাড়াটিয়া) মোঃ আলী (৪৭), ঘোষাল গ্রামের সহিল উদ্দীনের ছেলে সাবেক সেনা সদস্য আসাদুর রহমান (৪৬) ও গদাইপুর গ্রামের খন্দকার আব্দুল জলিলের ছেলে জাকির হোসেন (৩৫) কে আটক করে পৃথক পৃথক ভাবে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন চেয়ে আদালতে সোপর্দ করে। মঙ্গলবার শুনানী শেষে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিজ্ঞ বিচারক গাজী জামসেদুল হক অসুস্থ্যতার কারণে আসামী আসাদুরকে জেল গেটে জিজ্ঞাসাবাদ এবং আসামী মোঃ আলীর ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই স্বপন রায় জানান, বুধ ও বৃৃহস্পতিবার ২ দিনের রিমান্ড শেষে শুক্রবার আসামী আলীকে আদালতে পাঠানো হয়।  ওসি মারুফ আহম্মদ জানান, রিমান্ডে আলীর কাছ থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে যা যাচাই বাছায় করে দেখা হচ্ছে। এ ছাড়া আগামী রোববার এ মামলার অপর আসামী জাকিরের রিমান্ড শুনানীর দিন ধার্য রয়েছে।
###

মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে অভিনন্দন

পাইকগাছা  প্রতিনিধি :
বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি শহিদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর সহ কেন্দ্রীয় কমিটির নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন বিবৃতি দিয়েছেন ফোরামের পাইকগাছা উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।

05.08.16-1

বিবৃতি দাতারা হলেন, ফোরামের উপদেষ্টা মোস্তফা কামাল জাহাঙ্গীর, উপজেলা সভাপতি মোঃ আব্দুল আজিজ, সহ-সভাপতি এসএম আলাউদ্দীন সোহাগ, বি সরকার, সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দীন রাজা, সাংগঠনিক সম্পাদক এন ইসলাম সাগর, কোষাধ্যক্ষ ইমদাদুল হক, দপ্তর সম্পাদক এম আর মন্টু, মোঃ নজরুল ইসলাম, ইমদাদুল হক, বিভূতি ভূষণ ঢালী, আমিনুল ইসলাম বজলু, শেখ দ্বীন মাহমুদ, আব্দুর রাজ্জাক বুলি, কৃষ্ণ রায়, অমল মন্ডল, আবুল হাশেম, এম শফিউল ইসলাম, প্রবীর জয় ও এম আহসান উদ্দীন বাবু।
###

পাইকগাছায় ঘের মালিকের বিরুদ্ধে হারির টাকা না দেয়ার অভিযোগ

পাইকগাছা  প্রতিনিধি :
পাইকগাছায় প্রতাপ চন্দ্র সরকার নামে এক ঘের মালিকের বিরুদ্ধে হারির টাকা না দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আদালতে মামলা হয়েছে। মামলার তদন্ত প্রতিবেদনে অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হওয়ায় আদালতের বিজ্ঞ বিচারক আসামীকে ১০ দিনের মধ্যে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। প্রাপ্ত অভিযোগে জানাগেছে, উপজেলার শামুকপোতা গ্রামের নবকুমার ঢালীর ছেলে নিরঞ্জন কুমার ঢালী নিজনামীয় ৪ বিঘা জমি মাছ চাষের জন্য বিঘা প্রতি ৩ হাজার ৫শ টাকা হারি প্রদান সাপেক্ষে একই এলাকার প্রশান্ত কুমার ও বিধান চন্দ্র সরকারকে ২০০৬ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত লিজ ডিড প্রদান করেন। পথিমধ্যে ডিড গ্রহিতা প্রশান্ত কুমার মারা যাওয়ায় উক্ত জমিতে বিধান ও তার পিতা প্রতাপ চন্দ্র সরকার মাছ চাষ করে আসলেও অধ্যাবধি হারি বাবদ পাওনা ৪২ হাজার টাকা নিরঞ্জনকে পরিশোধ করেনি।

এমতাবস্থায় নিরঞ্জন বিধান ও প্রতাপকে বিবাদী করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করে। যার নং- সিআর ৬১৭/২০০৯। বিজ্ঞ বিচারক মামলার তদন্তভার কপিলমুনি সহচারী বিদ্যামন্দিরের প্রধান শিক্ষক হরেকৃষ্ণ দাশের উপর দায়িত্বভার অর্পন করেন। তদন্ত শেষে হরে কৃষ্ণ দাশ নিরঞ্জনের অনুকুলে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করলে বিজ্ঞ বিচারক আসামী প্রতাপকে ১০ দিনের মধ্যে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন।