পাইকগাছা সংবাদ ॥ প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে বাড়ী পেতে যাচ্ছে ৫১৭টি গৃহহীন পরিবার


143 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে বাড়ী পেতে যাচ্ছে ৫১৭টি গৃহহীন পরিবার
নভেম্বর ১২, ২০২০ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

শতভাগ সচ্ছতা নিশ্চিত করতে ইউএনও’র কঠোর নির্দেশনা

এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

পাইকগাছার ৫১৭টি গৃহহীন পরিবার প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে বাড়ী পেতে যাচ্ছে। গৃহ পাওয়ার জন্য কোন পরিবারকে যাতে হয়রানী হতে না হয় এবং এটাকে পুঁজি করে কেউ যাতে কোন বাণিজ্য করতে না পারে এ জন্য সতর্ক রয়েছে স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার দুপুরে জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করে গৃহ নির্মাণ কর্মসূচি দ্রুত বাস্তবায়ন এবং এ কাজে সচ্ছতা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আরাফাতুল আলম, ওসি এজাজ শফী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিয়াবুদ্দীন ফিরোজ বুলু, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ বিষ্ণুপদ বিশ্বাস, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা পবিত্র কুমার দাস, ইউপি চেয়ারম্যান কওছার আলী জোয়াদ্দার, রিপন কুমার মন্ডল, গাজী জুনায়েদুর রহমান, রুহুল আমিন বিশ্বাস, চিত্তরঞ্জন মন্ডল, উপজেলা প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইমরুল কায়েস ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান। মুজিব শতবর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন ঘোষণাকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় অত্র উপজেলায় (ক) শ্রেণির তালিকা অনুযায়ী ৫১৭টি গৃহহীন পরিবার বসবাসের জন্য পাকা ঘর পাচ্ছে। প্রতিটি ঘরের অনুকূলে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এ কর্মসূচি স্থানীয় প্রশাসন বাস্তবায়ন করছে। তদারকি করছে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি। ইতোমধ্যে এ কর্মসূচির আওতায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ ব্যক্তিগত উদ্যোগে দুটি ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন। স্থানীয় সংসদ সদস্য, ইউপি চেয়ারম্যান ও অনেক ব্যবসায়ী নেতারা ঘর নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলে জানাগেছে। তবে প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়নে সরকারি জায়গা নির্ধারণ নিয়ে বিপাকে রয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সরকারি জায়গা চিহ্নিত করতে ইউএনও ও এসিল্যান্ড প্রতিনিয়ত ছুটে চলেছেন উপজেলার এ প্রান্ত থেকে ওই প্রান্তে। আবার এটাকে পুজি করে কেউ যাতে বাণিজ্য করতে না পারে সে বিষয়টিও মাথায় রেখে সতর্ক রয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। বিশেষ করে তালিকা প্রণয়ন থেকে শুরু করে গৃহ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়া পর্যন্ত কোন পক্ষ যাতে আর্থিক সুবিধা নিতে না পারে এবং উপকারভোগী গৃহহীন পরিবাররা যাতে হয়রানি কিংবা প্রতারিত না হয় ও সচ্ছতা নিশ্চিত করার মাধ্যমে সঠিক ও মান সম্মত উপকরণ বজায় থাকে এ জন্য এ কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট যেমন, স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বর, ট্যাগ অফিসার ও তওসীলদারদের সাথে মতবিনিময় করেছেন ইউএনও এবিএম খালিদ হোসেন। তিনি এ ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক এবং সচ্ছতার সাথে কাজ করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তাদের পাশাপাশি কাজের গুণগতমান বজায় রাখতে এবং সচ্ছতা নিশ্চিত করতে সার্বিক মনিটরিং এর জন্য স্থানীয় ইমাম ও স্কুল শিক্ষকদের এ কাজে লাগানো হবে বলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানিয়েছেন।

#

পাইকগাছার ব্যবসায়ী পল্টু’র উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ

এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

পাইকগাছার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক সাইদুর রহমান পল্টু’র পক্ষ থেকে করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে পৌর সদরস্থ আরিফা মার্কেটের সামনে এ মাস্ক বিতরণ করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পথচারী সহ সর্বসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আরাফাতুল আলম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সুরাইয়া বানু ডলি, এ্যাডঃ শফিকুল ইসলাম কচি, ইলিয়াস হোসেন, অনিতা রানী মন্ডল, নিজাম উদ্দীন, মহিউদ্দীন ও আশরাফ হোসেন। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাতুল আলম পৌর বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় মাস্ক ব্যবহার না করায় ১ হাজার ১শ টাকা জরিমানা করেন।

#

পাইকগাছার একাধিক মামলার আসামী জাবেদ আটক

এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

পাইকগাছা থানা পুলিশ একাধিক মামলার আসামী জাবেদ মোড়লকে আটক করেছে। আটক জাবেদ উপজেলার রাড়–লী ইউনিয়নের বাঁকা গ্রামের মাদার মোড়লের ছেলে।

ওসি এজাজ শফী জানান, আটক জাবেদ ২০১২ সালের ২১ জুলাই বটিয়াঘাটা থানার ১৭নং মামলা ও একই বছরে পাইকগাছা থানার ২০ এপ্রিল ৩৪নং মামলা এবং ২০১৭ সালের ৩০ এপ্রিল ৪৯নং মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী। বুধবার ভোর রাতে পুলিশ বাঁকা বাজারের গনেশের মোড় থেকে জাবেদকে আটক করে। আটক আসামীকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশের এ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

#

১২ নভেম্বর উপকূল দিবস ঘোষনার দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর উপকূল সাংবাদিক ফাউন্ডেশন এর স্মারকলিপি প্রদান

এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::

১৯৭০ সালের ১২ নভেম্বর এদেশে আঘাত হানে প্রলয়ঙ্করী ঘুর্ণিঝড়। সেদিনে প্রাণ হারান প্রায় ৫ লাখ মানুষ। বিপুল পরিমাণ স্থাপনা ও গাছ-পালার ক্ষয়-ক্ষতি হয়। সেদিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে ১২ নভেম্বরকে উপকূল দিবস হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। খুলনার উপকূল সাংবাদিক ফাউন্ডেশন এর পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার সকালে ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ডা: সঞ্জিব দাশ এর মাধ্যমে এ স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে এক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

সুন্দরবন উপকূলীয় খুলনা জেলা, কয়রা, পাইকগাছা, দাকোপ, বটিয়াঘাটা ও ডুমুরিয়া উপজেলার সাংবাদিকেরা ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়ে মতামত ব্যক্ত করেন। সকলের মতামতের ভিত্তিতে একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ও অনলাইন ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেন, সাংবাদিক শেখ হেদায়েতুল্লাহ, আ: লতিফ মোড়ল, সুমন্ত চক্রবর্তি, জিএম ফিরোজ, মোঃ আব্দুল আজিজ, তৃপ্তি রঞ্জন সেন ও এন ইসলাম সাগর।

#