পাইকগাছা সংবাদ ॥ মিনহাজ নদীর নেটপাটা অপসারণ


496 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ মিনহাজ নদীর নেটপাটা অপসারণ
আগস্ট ৬, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা প্রতিনিধি :
খুলনার পাইকগাছায় আলোচিত মিনহাজ নদীর নেটপাটা অপসারণ করা হয়েছে। ইউএনও’র নেতৃত্বে ও সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বরদের সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার দিনভোর অভিযান চালিয়ে নদীর কয়েকটি স্থানের নেটপাটা অপসারণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ কামরুল ইসলাম, চাঁদখালী ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুনছুর আলী গাজী, লস্করের কে,এম, আরিফুজ্জামান তুহিন, গড়ইখালীর রুহুল আমিন বিশ্বাস, ইউপি সদস্য গাজী মিজান, কামরুল ইসলাম, আব্বাস মোল্যা ও  আবু শাহীন । উল্লেখ্য, ২৫১ একর আয়তনের মিনহাজ নদীতে ইজারাদার কর্তৃক নেটপাটা দিয়ে মাছ চাষ করার ফলে চলতি বর্ষা মৌসুমে ভারী বর্ষণের ফলে পাইকগাছার লস্কর, চাঁদখালী, গড়ইখালী ও কয়রার আমাদীসহ দু’উপজেলার ৪ ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়ে। হাজার হাজার হেক্টর কৃষি জমির ফসল ও চিংড়ি ঘের প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়। এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে অবশেষে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে আলোচিত এ নদীর নেটপাটা অপসারণ করা হলো।
##
পাইকগাছায় দু’দিন ব্যাপী দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত
পাইকগাছা প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় দু’দিন ব্যাপী পেশাগত দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার ও বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত দু’দিনব্যাপী কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন মুক্তি ফাউন্ডেশনের কেন্দ্র ব্যবস্থাপক শফিকুল ইসলাম। প্রশিক্ষণ ছিলেন, উত্তরণের সোহেল রানা ও ডাঃ রাকিব হাসান। বক্তব্য রাখেন, মুক্তি ফাউন্ডেশনের হিসাব রক্ষক মনি হালদার। উপজেলার লতা, দেলুটি, রাড়–লী, লস্কর ও চাঁদখালী ইউনিয়নের ২৫জন উপকারভোগী নারী ও পুরুষ অংশগ্রহণ করেন।
##
পাইকগাছায় গয়েশ্বর খাল ও পোদা নদী জবর দখলের পায়তারা
পাইকগাছা প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় স্বার্থান্বেষী একটি মহল গয়েশ্বর খাল ও পোদা নদী জবর দখলের পায়তারা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দিয়েছে।
প্রাপ্ত অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার লতা ইউনিয়নের গয়েশ্বর খাল ও পোদা নদী এলাকার কয়েকটি গ্রামের পানি সরবরাহের একমাত্র মাধ্যম। ইতোমধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার খাল ও নদীটির অবৈধ নেটপাটা অপসারণ করে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দিলেও সম্প্রতি এলাকার স্বার্থান্বেষী একটি মহল খন্ড খন্ড করে নেটপাটা ব্যবহার করার মাধ্যমে জবর দখলের পায়তারা করছে এমন আশংকায় এলাকাবাসী ইউএনও বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ কামরুল ইসলাম জানান।