পাইকগাছা সংবাদ ॥ সরকারি হাসপাতালের পাশেই গড়ে উঠেছে অবৈধ হসপিটাল ! ডাক্তার-নার্সদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ


572 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ সরকারি হাসপাতালের পাশেই গড়ে উঠেছে অবৈধ হসপিটাল ! ডাক্তার-নার্সদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ
অক্টোবর ১৪, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা :
পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ফারিন হস্পিটাল-এ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়াই চলছে জটিল জটিল রোগীদের অপারেশনের কাজ। এক দিকেই চলছে ডাক্তার, নার্সবিহীন অপারেশনের কাজ। অপরদিকে হাসপাতালের রোগীদেরকে জোরপূর্বক ক্লিনিকে পাঠানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। হাসপাতালের একই ডাক্তার অপরাগতা প্রকাশ করে পরবর্তীতে ঐ ক্লিনিকে সে রোগী অপারেশন করায় এলাকায় সমালোচনার ঝড় বইছে। এ ব্যাপারে ক্লিনিকটি বন্ধসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে সচেতন এলাকাবাসী।
জানা গেছে, সম্প্রতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পূর্ব পাশেই ফারিন হস্পিটাল নামে একটি ক্লিনিক গড়ে উঠেছে। কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়াই ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ বেশ কিছু ধরে জটিল জটিল রোগীদের অপারেশনের কাজ শুরু করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ক্লিনিকে অপারেশনের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কিংবা সার্বক্ষণিক ডাক্তার, নার্সদের ব্যবস্থা না থাকলেও কর্তৃপক্ষ দেদারছে চালিয়ে যাচ্ছে জমজমাট ক্লিনিক ব্যবসা। অপরদিকে হাসপাতালের কর্মরত ডাক্তার, নার্সদের সহযোগিতায় ভর্তিকৃত রোগীদের বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে সংশ্লিষ্ট ক্লিনিকে নিয়ে গিয়ে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে মোটা অংকের টাকা।

বন্ধন ব্লাড ডোনার ক্লাবের সভাপতি জামিলুর রহমান রানা জানান, আমার নিকট আত্মীয় কাশিমনগর গ্রামের বাবুর সন্তান সম্ভাবা স্ত্রী তাছলিমাকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। হাসপাতালে অপারেশন করা সম্ভব নয় বলে ডাক্তার সুজন কুমার রোগীকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। বুধবার ভোর রাতে নার্স সুলতা ও হামিদা রোগীকে জোরপূর্বক ফারিন হস্পিটালে পাঠিয়ে দেয়। এদিন সকালে সেই সুজন ডাক্তারই রোগীকে অপারেশন করে। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে এবং ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের জোকসাজসে হাসপাতালের কতিপয় ডাক্তার, নার্সরা এ ধরণের ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েছেন বলে তিনি জানান। এ ব্যাপারে এ ধরণের একটি অভিযোগ শুনেছি বলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডাঃ সাফিকুল ইসলাম শিকদার জানান।

ফারিন হস্পিটালের স্বত্ত্বাধিকারী খায়রুল আলম জানান, হসপিটালের সমস্ত কাগজপত্র খুলনায় এবং ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। কোন রেজিষ্ট্রেশন নম্বর পড়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে রেজিষ্ট্রেশন নম্বর পেতে বিলম্ব হয় উল্লেখ করে বুধবার সকালের অপারেশন ডাক্তার সুজন কুমার করেছেন বলে স্বীকার করেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবিরউদ্দীন জানান।
##

‘দেশের ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ অতি দরিদ্র’
এস.এম. আলাউদ্দি সোহাগ, পাইকগাছা (খুলনা) ॥
পাইকগাছায় উন্নয়নভাবনায় দারিদ্র হ্রাস : অতি দরিদ্রদের অংশগ্রহণ ও উত্তরণ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেছেন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, নারীর ক্ষমতায়সহ বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশ ইতিবাচক সাফল্য অর্জন করেছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ১.৩৭ শতাংশ, গড় আয়ু ৭০ বছরে উন্নীতসহ এক দশকের ব্যবধানে দারিদ্রের হার ১৫ শতাংশ কমে এসেছে উল্লেখ করে বক্তারা আরো বলেন, প্রশংসনীয় এ সাফল্য অর্জিত হওয়ার পরও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়তে এখনও অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। বিশেষ করে দেশের মোট জনগোষ্ঠির ২৫.৬ শতাংশ অর্থাৎ ৩ কোটি ৮৫ লাখ মানুষ দরিদ্র এবং ১০.৬৪ শতাংশ অর্থাৎ ১ কোটি ৫৭ লাখ মানুষ অতি দরিদ্র। এখনও দেশের প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের ৫৬ লাখ শিশু বিদ্যালয়ে যায় না। প্রাথমিকে ঝরে পড়ার হার ২০.৯ শতাংশ। বিপুল পরিমাণ অতি দরিদ্র এ জনগোষ্ঠিকে উপেক্ষা করে দেশের কাংখিত উন্নয়ন সম্ভব নয় উল্লেখ করে বক্তারা উন্নয়নের ধারাকে টেকসই করতে সরকারী ও বেসরকারী সম্মিলিত প্রচেষ্টার উপর গুরুত্বারোপ করেন। বক্তারা বুধবার সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অ্যাডভোকেসি ফর সোশ্যাল চেইঞ্জ ব্র্যাক আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবিরউদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স.ম. বাবর আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওঃ শেখ কামাল হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহানারা খাতুন। বক্তব্য রাখেন, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ শরিফুল ইসলাম, শিক্ষা কর্মকর্তা নরেন্দ্রনাথ মৈত্র, সমাজসেবা কর্মকর্তা দেবাশীষ সরদার, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা রেজাউল করিম, মেডিকেল অফিসার ডাঃ সাফিকুল ইসলাম, ব্র্যাকের জেলা সোশ্যাল কমিউনিটিটেটর শেখ মনিরুল হক, সিনিয়র উপজেলা ম্যানেজার একেএম শাহীন আলম, সিনিয়র শাখা ব্যবস্থাপক প্রবীর সমাদ্দার ও প্রকল্প কর্মকর্তা মারুফা আক্তার মনি।
##
পাইকগাছা উপজেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত : ৩ ইউনিয়ন কমিটি বিলুপ্ত
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছা উপজেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় গদাইপুর, রাড়–লী ও গড়ইখালী ইউনিয়ন কমিটি ভেঙ্গে দেয়াসহ আগামী ১১ নভেম্বর যথাযোগ্য মর্যাদায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে। বুধবার সকালে ডাকবাংলো চত্ত্বরে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এস,এম, শামছুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা যুবলীগনেতা শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত, যুবলীগনেতা শেখ শহিদ হোসেন বাবুল, শেখ আব্দুস সাত্তার, শেখ সেলিম উল্লাহ, শেখ মাসুদুর রহমান, আব্দুস সামাদ, চিত্তরঞ্জন বাছাড়, নাজমা কামাল, জহুরুল হক, নুরুল ইসলাম, বাবু লাল বিশ্বাস, শেখ তৌহিদ হোসেন তাজ, আব্দুর রাজ্জাক সানা, জগদীশ চন্দ্র রায়, সায়েদ আলী কালাই, অনুপ কুমার ঘোষ, প্রকাশ মন্ডল, বারিক গাজী, প্রণব কান্তি মন্ডল, ডাঃ নজির আহমেদ, আব্দুল হালিম, শেখ আসাফুর রহমান, সুকদেব মন্ডল, অজিত বিশ্বাস, বাবুল আকতার, আনিছুর রহমান গোলদার, কামরুল ইসলাম, দ্বিজেন্দ্রনাথ মন্ডল, রজব আলী গাজী, শেখ ফজলুর রহমান, বজলু গাজী, আসিফ ইকবাল রনি, দিপংকর মন্ডল, হামিদ মোড়ল, কামরুজ্জামান, জাহিদুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, আজিবর মন্ডল, নজরুল ইসলাম মোল্যা, শেখ রাজু আহমেদ, আমিরুল ইসলাম, রাকেশ সরদার ও পল্লব নাথ।