পাইকগাছা সংবাদ ॥ সাহিত্য আসর ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত


417 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ সাহিত্য আসর ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ , পাইকগাছা  প্রতিনিধি :
পাইকগাছা উপকূল সাহিত্য পরিষদের উদ্যোগে সাহিত্য আসর ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে সংগঠণের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স,ম. বাবর আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, অধ্যক্ষ লুৎফর রহমান, অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মিহির বরণ মন্ডল, প্রধান শিক্ষক অপু মন্ডল, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক সুরাইয়া বানু, মুক্তিযোদ্ধা সরদার মোহাম্মদ নাজিম উদ্দীন. সাংবাদিক আব্দুল আজিজ, খলিলুর রহমান, বিকাসেন্দু সরকার, শ্যামল কৃষ্ণ মন্ডল, প্রাণকৃষ্ণ দাশ, মাওঃ আমিনুর রহমান সিরাজী, চিত্তরঞ্জন মন্ডল, শংকর কুমার মন্ডল, জি,এম, আজহারুল ইসলাম, জি,এম, হযরত আলী, সামছুর রহমান মোড়ল, সাব্বির হোসেন ও ফারিহা সুলতানা।
##

পাইকগাছায় কলেজ ছাত্রী উর্মির আত্মহত্যা

পাইকগাছা প্রতিনিধি ॥
“আম্মু তুমি আমাকে ক্ষমা করে দিও, তুমি ভাবতে পারো যে, আমি মনে হয় কোন ছেলের জন্য মরে যাচ্ছি। কিন্তু না। আমি কোন ছেলের জন্য এটা করছি না। আমি সত্যেই মরতে চাইনি, কিন্তু কি করব বলো, কেউ কি তার চরিত্র সম্পর্কে বাজে কথা শুনতে চাই”।

আম্মু তুমি জানো না, সেদিন কলেজে সবার সামনে লাকী, হেনা, রনি, সামছুন্নাহার এরা সবাই আমাকে বলেছে যে আমি নাকী চরিত্রহীন। মরার আগে কেউ মিথ্যা বলে না। আম্মু আমি সত্যিই কোন ছেলের সাথে বাজে কাজ করেনি। আমার অনেক কষ্ট হচ্ছে তোমাদের ছেড়ে চলে যেতে। কিন্তু কি করব! আমি এই সব কথা আর শুনতে পারছি না। অনেক সহ্য করছি, আর পারছি না। আমি সত্যিই কোন বাজে কাজ করেনি। কিন্তু এটা কেউ বিশ্বাস করতে চাই না। আমাকে সবাই খারাপ ভেবে আমার সাথে কেউ কথা বলতে চাই না। আম্মু তুমি আমাকে মাফ করে দিও। আমিও কোনদিন ভাবেনি যে আমাকে এভাবে মরতে হবে। অনেক আশা নিয়ে পাইকগাছায় পড়তে এসেছিলাম। কিন্তু সে আশা আর পূরণ হলো না। আমি তোমার আশা পূরণ করতে পারলাম না। আম্মু তুমি ভালো থেকো। আমার জন্য বেশি ভেবো না। আমার কপালে যেটা লেখা ছিল সেটা হচ্ছে।”

মৃত্যুর আগে উর্মি তার মায়ের উদ্দেশ্যে এভাবেই ২ পৃষ্ঠার চিরকুট লিখে যায়। উল্লেখ্য, গত ৯ সেপ্টেম্বর বিষপানে আত্মহত্যা করে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার গজালিয়া গ্রামের রেজাউল করিমের মেয়ে ও লক্ষ্মীখোলা কলেজিয়েট স্কুলের এইচএসসি দ্বিতীয়বর্ষের ছাত্রী উর্মি। এলাকাবাসী ও তার পরিবার সূত্রে জানা যায়, জেএসসি পাশ করার পর খুলনায় একটি ছেলের সাথে বিয়ে হয় উর্মির। পারিবারিক কলহের কারণে সম্পর্কের অবনতি ঘটে দাম্পত্য জীবনে। এক পর্যায়ে পিতৃলয়ে এসে ছেলেটির বিরুদ্ধে মামলা করে আদালতে। মামলা চলমান থাকাবস্থায় উর্মি সিদ্ধান্ত নেয় লেখাপড়া শিখে মানুষের মত মানুষ হবে। মৃত্যুর ৪ মাস আগে সে প্রাইভেট পড়া সূত্রে ভাড়া বাসা নিয়ে পৌর সদরে বসবাস শুরু করে। উর্মির লেখা চিরকুট থেকে বোঝা যায় কলেজে সহপাঠীদের অপমানের জ্বালা সইতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় মেধাবী ছাত্রী উর্মি। এ ব্যাপারে থানার এস,আই স্বপন কুমার রায় জানান, উর্মি মৃত্যুর আগে এ ধরণের একটি চিরকুট লিখে রেখে গেছে শুনেছি। তবে এ ব্যাপারে তার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ করা হয়নি। পাশাপাশি তার ময়না তদন্তের ভিসেরা রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় কোন পদক্ষেপ নেয়া যাচ্ছে না। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে ওসি আশরাফ হোসেন জানান।
###

পাইকগাছায় মদ, গাঁজা ও জুয়াড়িসহ আটক ৭
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় মদ, গাঁজা ও জুয়াড়িসহ ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। থানা পুলিশ গত ৪ দিনে পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে। থানা পুলিশের এস,আই বিশ্বজিত অধিকারী মঙ্গলবার দুপুরে দেবদুয়ার এলাকায় একটি চায়ের দোকানে অভিযান চালিয়ে ৪ জুয়াড়ীকে আটক করে। আটককৃতরা হলো- একই এলাকার আজিজ মোল্যার ছেলে রাশেদ মোল্যা, জাহান আলী গাজীর ছেলে মজিদ, খোকন গাজীর ছেলে কালু গাজী ও মোজাম গাজীর ছেলে রেজাউল গাজী।

এর আগে গত রোববার ওসি (তদন্ত) আলমগীর হোসেন ও এস,আই বিশ্বজিত অধিকারী নাসিরপুর আইস ফ্যাক্টরী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২৫ বোতল বিদেশী মদ, ১২ বোতল ফেনসিডিল ও ৩০ পিচ ইয়াবাসহ অমূল্য বিশ্বাসের ছেলে অর্জুন বিশ্বাস (৩৫) ও মৃত এলাহী বক্সের ছেলের এস,এম, ফারুক (৫৪) কে আটক করে। গত শনিবার এস,আই স্বপন কুমার রায় অভিযান চালিয়ে ধামরাইল গ্রামের হাকিম মোড়লের ছেলে আমিরুল মোড়ল (২২) কে ১০ গ্রাম গাঁজাসহ আটক করে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে পৃথক মামলা হয়েছে বলে ওসি আশরাফ হোসেন জানান।