পাইকগাছা সংবাদ ॥ ১৩৯টি মন্ডপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে দুর্গোৎসব


425 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥  ১৩৯টি মন্ডপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে দুর্গোৎসব
অক্টোবর ১৬, ২০১৫ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

পাইকগাছা (খুলনা)প্রতিনিধি॥
পাইকগাছায় এ বছর ১৩৯ টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ উপলক্ষ্যে সনাতন ধর্মালম্বীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। মোট পূজা মন্ডপের মধ্যে ৩৬টি অধিক গুরুত্বপূর্ণ, ২১ টি গুরুত্বপূর্ণ ও ৮২ টি সাধারণ চিহ্নিত করা হয়েছে। উৎসবকে ঘিরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। উল্লেখ্য আগামী সোমবার ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হচ্ছে শারদীয় দূর্গোৎসব। এ বছর উপজেলায় ১৩৯ টি মন্ডপে দূর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যার মধ্যে পৌরসভায় ৬টি, হরিঢালী ১৮টি, কপিলমুনি ১৬টি, লতা ১১টি, দেলুটি ১৩ টি, সোলাদানা ১২টি, লস্কর ১৭টি, গদাইপুর ৪টি, রাড়লী ১৭টি, চাঁদখালী ১৪টি ও গড়ইখালী ১১টি। মন্ডপগুলোর মধ্যে পৌরসদরের বাতিখালী হরিতলা সার্বজনীন মন্দিরে এ বছর সর্বাধিক ১২১টি প্রতিমা তৈরী করা হয়েছে। সে সুবাধে এখানেই সর্ববৃহৎ দূর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পূজার আনুষ্ঠানিকতা এখনো দু’একদিন বাকি থাকায় মন্ডপগুলোকে শেষ প্রস্তুতির কাজ সেরে নিচ্ছেন সকলেই। প্রধান ধর্মীয় এ উৎসবকে ঘিরে উপজেলায় বসবাসরত লক্ষাধীক সনাতন ধর্মালম্বীদের মধ্যে খুশির আমেজ বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমীরণ সাধু জানান এ বছর ১৪০টি মন্দিরে পূজা হওয়ার কথা থাকলেও শেষ মুহুর্তে একটি মন্ডপ বন্ধ রাখা হয়েছে। ইতোমধ্যে মন্ডপগুলোতে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি। বিগত যেকোন বছরের চেয়ে এ বছর উৎসব আনন্দঘন পরিবেশে হবে বলে তিনি জানান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবির উদ্দীন জানান উৎসবকে ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। গুরুত্ববুঝে মন্ডলগুলোতে পুলিশ, আনসার ব্যাটেলিয়ান ও স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করা হয়েছে।
##
পাইকগাছায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি॥
পাইকগাছায় ইউএনও’র হস্তক্ষেপে স্কুল পড়–য়া এক শিক্ষার্থীর বাল্য বিবাহ বন্ধ করা হয়েছে। মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সরেজমিন গিয়ে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা করেন স্কুল পড়–য়া ওই শিক্ষার্থীকে।
জানাগেছে উপজেলার গদাইপুর গ্রামের বাচ্চু খাঁ নামে জনৈক ব্যক্তি ভোলানাথ সুখদা সুন্দরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীতে পড়–য়া মেয়েকে শুক্রবার জনৈক এক ছেলের সাথে বিয়ের আয়োজন করে। এ খবর জানতে পেরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবির উদ্দীন বিয়ে বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনিরুজ্জামানকে নির্দেশ দেন। সে মোতাবেক মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বরপক্ষের লোকজন হাজির হবার আগেই বাচ্চু খাঁর বাড়ীতে উপস্থিত হয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন। এ সময় প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবেন না মর্মে তার অভিভাবকরা মুচলেকা দেন।