পাইকগাছা সংবাদ ॥ ৩ দিনে ৪৫ চেয়ারম্যান সহ ৪৮৪ প্রার্থীর মনোনয়ন সংগ্রহ


504 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাইকগাছা সংবাদ ॥ ৩ দিনে ৪৫ চেয়ারম্যান সহ ৪৮৪ প্রার্থীর মনোনয়ন সংগ্রহ
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৬ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গত ৩ দিনে ১০ ইউনিয়ন থেকে ৪৫ চেয়ারম্যান প্রার্থী, ১০৩ সংরক্ষিত ও ৩৩৬ সাধারণ সদস্য সহ ৪৮৪ প্রার্থী মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ১৯জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ৫৩ জন সংরক্ষিত ও ১৩১ জন সাধারণ সদস্য প্রার্থী মনোনয়ন নিয়েছেন। এর আগে গত বুধবার ২০ জন চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত ৩৯ ও সাধারণ ১৫১ এবং গত মঙ্গলবার ৬ চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত ১১ ও ৫৪ সাধারণ সদস্য প্রার্থী মনোনয়ন সংগ্রহ করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ১ নং হরিঢালী ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে শেখ বেনজির আহম্মেদ বাচ্চু (আ’লীগ), সংরক্ষিত ১ থেকে তহমিনা বেগম ও আনজুয়ারা বেগম, ৩ থেকে বিউটি রানী দেবনাথ, সাধারণ ১ থেকে প্রহ্লাদ কুমার দে, ২ থেকে শেখ আল আমিন ও আকবর আলী মোড়ল, ৩ থেকে আব্দুল মল্লিক, ৬ থেকে এইচএম আবুল কাশেম ও রবিন্দ্রনাথ বিশ্বাস, ৮ থেকে মিজানুর রহমান, ৯ থেকে সন্তোষ সরদার ও সিরাজুল মোড়ল। ২ নং কপিলমুনি ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে কওছার আলী জোয়াদ্দার (আ’লীগ), সংরক্ষিত ২ থেকে সরস্বতী বিশ্বাস, সখিনা বিবি, কুমকুম রানী দাশ ও রেবেকা বেগম, ৩ থেকে রাজিয়া সুলতানা ও ফজিলাতুন্নেছা, সাধারণ ৩ থেকে জয়দেব শীল, ৪ থেকে আজিজ বিশ্বাস ও রবিন্দ্রনাথ অধিকারী, ৫ থেকে আছাদুর রহমান, ৬ থেকে এএস মোস্তাফিজুর রহমান মিন্টু ও হাসান আলী, ৭ থেকে এজাহার আলী গাজী, ৮ থেকে গফ্ফার গাজী, ৯ থেকে মিজানুর রহমান। ৩ নং লতা ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে ইব্রাহিম গাজী (বিএনপি) ও সাবেক চেয়ারম্যান দিবাকর বিশ্বাস (আ’লীগ), সংরক্ষিত ১ থেকে সুষমা রায়, ২ থেকে কাদমম্বিনী মন্ডল ও দিপ্তী সরকার, ৩ থেকে চম্পা বেগম, লক্ষ্মী রানী বৈদ্য, বুলু রানী ঢালী ও আরাধনা মল্লিক, সাধারণ ২ থেকে নির্মল সরকার ও পলাশ রায়, ৩ থেকে সেবানন্দ রায়, ৪ থেকে অজিত কুমার ঢালী, সাংবাদিক কৃষ্ণ রায় ও প্রশান্ত মিস্ত্রী, ৫ থেকে আনন্দ বিশ্বাস ও প্রকাশ সরকার, ৬ থেকে আজিজুল বিশ্বাস ও দেবাশীষ বিশ্বাস, ৭ থেকে নিরাপদ মন্ডল ও গুরুদাশ মন্ডল, ৮ থেকে মীর ইব্রাহিম খলিল। ৪নং দেলুটি ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে রিপন কুমার মন্ডল (আ’লীগ) ও বর্তমান চেয়ারম্যান সমর কান্তি হালদার (সতন্ত্র), সংরক্ষিত ১ থেকে লিপিকা মন্ডল, অনিমা মন্ডল ও সুহাসিনী ঢালী, ২ থেকে বিউটি রানী রায় ও মনোয়ারা বেগম, ৩ থেকে মেরী রানী সরদার ও ডালিম রায়, সাধারণ ১ থেকে কিংসুক রায় ও সুধীর কুমার মন্ডল, ২ থেকে রবিন্দ্রনাথ মন্ডল, ৩ থেকে দিপক কুমার মন্ডল, দিলিপ কান্তি মন্ডল ও বিরুপাক্ষ মন্ডল, ৪ থেকে সুকুমার কবিরাজ, ৫ থেকে তরুণ কান্তি সরকার ও জহির উদ্দীন, ৮ থেকে রিংকু রায়, ৯ থেকে বিরেন্দ্রনাথ মল্লিক, রণধীর মন্ডল ও মনোরঞ্জন মহলদার। ৫ নং সোলাদানা ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে আব্দুল মান্নান গাজী (আ’লীগ), কাজী তমজিদ আলম (জামাত) ও রেজাউল করিম গাজী (সতন্ত্র), সংরক্ষিত ১ থেকে সুফিয়া বেগম, সন্ধ্যা রানী সরকার ও নাসিমা বেগম, ২ থেকে শাশ্বতী রানী মন্ডল, ৩ থেকে নাসিমা বিবি, সাধারণ ১ থেকে জিন্নাত গাজী, ২ থেকে আবুল কালাম আজাদ, ৪ থেকে রাজ্জাক মল্লিক ও শহীদুজ্জামান সরদার, ৫ থেকে মনিরুজ্জামান শেখ ও আব্দুস সবুর, ৬ থেকে দিপঙ্কর সরদার, ৯ থেকে বিএম আরিফিন আলী বিশ্বাস। ৬নং লস্কর ইউনিয়নের সংরক্ষিত ১ থেকে সোনাবান বেগম, সাবিনা ইয়াসমিন ও ভদি দাশী সরদার, ২ থেকে কুলসুম বেগম ও ফিরোজা বেগম, ৩ থেকে সুচিত্রা ঢালী ও মিনতী রানী মিস্ত্রী, সাধারণ ১ থেকে কুমারেশ চন্দ্র সরদার, ২ থেকে হাসানুজ্জামান, ৪ থেকে আমিরুল ইসলাম, হযরত গাজী, কামরুজ্জামান ও  হারুণ জমাদ্দার, ৭ থেকে তরুণ কান্তি সানা ও প্রকাশ মন্ডল, ৮ থেকে অরবিন্দু মন্ডল, প্রনব কান্তি সরদার ও নিখিল রঞ্জন মন্ডল, ৯ থেকে দিলিপ কুমার মন্ডল ও কালিপদ মন্ডল। ৭নং গদাইপুর ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে এসএম আমিনুল ইসলাম (জামাত), শেখ মাসুদুর রহমান (সতন্ত্র) ও শেখ জিয়াদুল ইসলাম (সতন্ত্র), সংরক্ষিত ১ থেকে আমেনা বেগম ও শাহানারা খাতুন, ২ থেকে কোহিনুর বেগম ও মনিরা বেগম, ৩ থেকে খন্দকার সুফিয়া ও লতিফা আক্তার, সাধারণ ১ থেকে শের আলী গাজী, হায়দার মোড়ল ও আজগার শেখ, ৩ থেকে রহমত মোড়ল ও এনএস জাহাঙ্গীর, ৪ থেকে এসএম খলিলুর রহমান, ৫ থেকে আব্দুল আজিজ, সায়েদ আলী ও আব্দুল মজিদ, ৬ থেকে সুবোল বিশ্বাস, ৭ থেকে শেখ আতাউর রহমান, ৮ থেকে জবেদ আলী, কাজী আবুল বাসার, নূরুল ইসলাম, কাদের সরদার ও জামাল উদ্দীন, ৯ থেকে আব্দুল হাকিম ও তুহিনুর রহমান। ৮নং রাড়–লী ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে শেখ হাবিবুর রহমান (বিএনপি) ও আব্দুর রাজ্জাক গাজী (সতন্ত্র), সংরক্ষিত ১ থেকে গৌরি রানী বিশ্বাস ও জাকিয়া বিবি, ২ থেকে হোসনেয়ারা বেগম, সাধারণ ২ থেকে গফ্ফার মোড়ল, ৩ থেকে সুজিত ঘোষ ও জাহান আলী গাজী, ৪ থেকে ছহিল উদ্দীন, ৬ থেকে খালেক গোলদার, মন্টু ঘোষ, দিলিপ দাশ, পরিমল ঘোষ, আহাদ গোলদার ও মনোরঞ্জন ঘোষ, ৭ থেকে ছাত্তার মোড়ল, ৮ থেকে আহসানুর রহমান, ৯ থেকে জিএম গোলদার আহম্মদ। ৯ নং চাঁদখালী ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে সাবেক চেয়ারম্যান জোয়াদ্দার রসুল (বিএনপি) ও সাবেক চেয়ারম্যান এসএম আনিছুর রহমান (সতন্ত্র), সংরক্ষিত ১ থেকে আয়না বেগম ও নাজমুন নাহার, ২ থেকে নার্গিস বেগম, মাহমুদা জামাল ও সেলিনা পারভীন, ৩ থেকে তাসলিমা বেগম ও ফেরদৌসী খানম, সাধারণ ১ থেকে জাহাঙ্গীর গাজী, নূরুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান, ২ থেকে মোস্তফা আল তারেক, ৩ থেকে শরীফুল ইসলাম ও বারিক গাজী, ৪ থেকে আহাদুজ্জামান ও জাহান আলী, ৫ থেকে জয়নুল আবেদীন, মান্নান গাজী ও রহমান মালি, ৬ থেকে হাবিবুর রহমান, হান্নান গাজী, আব্দুল জব্বার, ইছার উদ্দীন ও আব্দুল হালিম, ৭ থেকে গোলাম মোস্তফা ও বদিয়ার খান, ৯ থেকে আব্দুস সালাম ও মিজানুর রহমান। ১০ গড়ইখালী ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে সাবেক চেয়ারম্যান গাজী মোস্তফা কামাল বন্ধন (সতন্ত্র), কলিঙ্গরাজ মন্ডল (বিএনপি) ও জিএম মফিজুল ইসলাম (সতন্ত্র), সংরক্ষিত ১ থেকে নাসরিন মন্টু, ৩ থেকে সিমা বিশ্বাস, সাধারণ ১ থেকে এসএম মনিরুল ইসলাম, সেলিম সরদার ও মিজানুর রহমান, ২ থেকে আক্তার হোসেন গাইন, শহীদুল ইসলাম ও মনিরুল ইসলাম, ৩ থেকে হান্নান গাজী, ৪ থেকে আয়ুব আলী সরদার, রবিন্দ্রনাথ মন্ডল ও সোহরাব শেখ, ৫ থেকে নির্মল সরকার ও সনাতন বৈদ্য, ৬ থেকে পরিমল চন্দ্র মন্ডল, ৮ থেকে রবিউল ইসলাম ও ৯ থেকে ইয়ামিন হোসেন মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন বলে সহকারী রির্টাণিং অফিসার বৃন্দ জানান।
##

পাইকগাছায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান; এক ব্যক্তিকে ১ বছরের জেল
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় ভ্রাম্যমান আদালত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে এক ব্যক্তিকে ১ বছরের কারাদন্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। একই সাথে বিপুল পরিমান নির্মাণ সামগ্রী (মালামাল) জব্দ ও মূল দখলকারীর বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করতে ওসিকে নির্দেশ দিয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ কবির উদ্দীন গড়ইখালী গ্রামের কেসমত গাইনের ছেলে কামরুল ইসলাম গাইন (৪৫) এর গড়ইখালী বাজারস্থ অবৈধ স্থাপনায় অভিযান চালিয়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও বিপুল পরিমান নির্মাণ সামগ্রী জব্দ করেন। এসময় কামরুল গাইন ও তার সহযোগি পাশ্ববর্তী হড্ডা গ্রামের মনোহর চন্দ্র মন্ডলের ছেলে তুষার কান্তি মন্ডল (৩৫)কে আটক করলে থানা পুলিশের কাছ থেকে কামরুল গাইন পালিয়ে যান। পরে ভ্রাম্যমান আদালতে ১৯৬৯ সালের ভূমি দখল ও উদ্ধার আইনে আটক তুষারকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানা একই সাথে কামরুল গাইনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করতে থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাইনবাড়ীয়া ক্যাম্প ইনচার্জ মোঃ শাহাবুদ্দীন।
##
পাইকগাছায় ৩৫ মেট্রিক টন আমন চাল সংগ্রহ
পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
পাইকগাছায় আমন মৌসুমের নির্ধারিত লক্ষ মাত্রা অনুযায়ী সরকারী ভাবে ৩৫ মেট্রিক টন ফলিত নতুন আমন চাল সংগ্রহ সম্পন্ন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ৭টি মিল ডিলারের মাধ্যমে এ চাল সংগ্রহ করা হয়। এসময় পরীক্ষা নিরিক্ষার পর চালের মান নিয়ে সন্তুষ্ট প্রকাশ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স ম বাবর আলী। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা  মোঃ বজলুর রহমান, খাদ্য পরিদর্শক ও খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা মোঃ কামরুল ইসলাম, প্রাক্তন অধ্যক্ষ লুৎফর রহমান, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আহম্মদ আলী মোড়ল, প্রভাষক দেলোয়ার হোসেন ও সাংবাদিক আব্দুল আজিজ সহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও নেতৃবৃন্দ।