পাটকেলঘাটার চাঞ্চল্যকর ফারুক হত্যা মামলার সন্ধিগ্ন আসামী বিল্লাল সিআইডি পুলিশের হাতে আটক


427 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাটকেলঘাটার চাঞ্চল্যকর ফারুক হত্যা মামলার সন্ধিগ্ন আসামী বিল্লাল সিআইডি পুলিশের হাতে আটক
আগস্ট ১১, ২০১৫ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

মোঃ কামরুজ্জামান, পাটকেলঘাটা থেকে :
পাটকেলঘাটা চাঞ্চল্যকর মোটর সাইকেল চালক ফারুক হত্যা মামলার সন্ধিগ্ন আসামী বিল্লাল হোসেনকে আটক করেছে সিআইডি পুলিশ। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে সাতক্ষীরা সিআইডি পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির অভিযান চালিয়ে ওভার ব্রীজ এলাকা থেকে তাকে আটক করে। আটককৃত বিল্লাল হোসেন (২৫) থানার লালচন্দ্রপুর গ্রামের মিজানুর সরদারের পুত্র।
জানা গেছে,গত ২০১৩ সালের ২নভেম্বর কালিপূজার রাতে থানার রাজেন্দ্রপুর গ্রামের নির্জন এলাকার একটি ধান ক্ষেতে ডেকে নিয়ে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী মোটর সাইকেল চালক ফারুককে হাত-পা বেঁধে ধারালো অস্ত্র দ্বারা উপুর্যপরি কুপিয়ে সন্ত্রাসীরা নির্মমভাবে হত্যা করে। ঐসময় খুনিরা তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেল ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। এঘটনার ২দিন পর ৪ নভেম্বর নিহতের পিতা আচিমতলা গ্রামের মাহবুর শেখ ও মাতা ঝরণা বেগম ৬নভেম্বর বাদী হয়ে পৃথক দুটি এজাহার দাখিল করেন। পৃথক এজাহারে থানার চৌগাছা গ্রামে মৃত শেখ আলফাজ উদ্দীনের পুত্র  সুমন (২৫) একই গ্রামের শেখ হায়দার আলীর পুত্র টিপু সুলতান (৩২) আচিমতলা গ্রামের আসাদুল শেখের পুত্র আব্দুল বারী (২৬)। পিতার এজাহারে সন্দিগ্ন আসামী হিসেবে নিহতের পালিত পিতা বাইগুনি গ্রামের শামসের শেখ (৪২),লালচন্দ্রপুর গ্রামের জহুরুল মোড়লের পুত্র দীপু (২২) ও যুগীপুকুরিয়া গ্রামের মালেক সরদারের পুত্র ট্রাক চালক কবির সরদার (২৫)সহ আরো অজ্ঞাতনামা আসামী উল্লেখ করেন। মামলাটি থানার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই আব্দুল হাকিম দীর্ঘ তদন্ত শেষে কাশীপুর গ্রামের লুৎফর রহমানের পুত্র মুন্নাসহ ৬জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চুড়ান্ত অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালতে ধার্য দিনে নিহতের পিতা মাহবুর নারাজী আবেদন করলে আদালত শুনানী শেষে অধিকতর তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সিআইডি পুলিশকে আদেশ দেন। এরই প্রেক্ষিতে সিআইডি পুলিশ তদন্ত অব্যাহত রাখার এক পর্যায়ে বিল্লালকে গ্রেফতার করে।