পাটকেলঘাটার বিভিন্ন বস্ত্র বিতান গুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়


562 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাটকেলঘাটার বিভিন্ন বস্ত্র বিতান গুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়
আগস্ট ২০, ২০১৮ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

*পোষাকের আকাশ ছোয়া দামে বেকায়দায় ক্রেতারা

অমিত কুমার ::
পবিত্র ঈদুল আযহা কে সামনে রেখে পাটকেলঘাটার বিভিন্ন বিপনি বিতান গুলোতে প্রায় শেষ মুহুর্তে জমে উঠেছে ক্রেতা-বিক্রেতাদের বেচাকেনা। ক্রেতাদের সন্তষ্ট করে পোশাক-প্রসাধনী সামগ্রী বিক্রিতে ব্যস্ত দোকান মালিক ও কর্মচারীরা। বস্ত্র বিতান, কসমেটিক্স এর দোকান গুলোতে উপচে পড়া ভিড় লক্ষনীয়।
সাতক্ষীরা জেলার সব থেকে বড় বানিজ্য কেন্দ্র পাটকেলঘাটায় ক্রেতা সমাগম বরাবরই বেশী থাকে। আর ১ দিন পরেই মুসলিম ধর্মালম্বীদের সব থেকে বড় উৎসব পবিত্র ঈদুল আযহা। পাটকেলঘাটা বাজারের বেশীর ভাগ দোকান গুলোতে কাক ডাকা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলেছে ঈদের কেনাকাটা। তবে গত বছরের তুলনায় এবারের প্রত্যেকটা জিনিষের দাম বেশী হওয়ায় সাধ ও সামর্থ্যরে সব কিছু কেনা সম্ভব হচ্ছে না বলে অনেক ক্রেতাই জানান। পাটকেলঘাটা বস্ত্র বিপনি দোকান গুলোর মধ্যে আল-মদিনা বস্ত্র সম্ভার, ভারতী বস্ত্র সম্ভার, সামমুন বস্ত্রালয়, আল্লাহর দান বস্ত্রালয়, উর্মি বস্ত্রালয়, রুপা ফ্যাশন,মুনিয়া ফ্যাশান,সোহাগ গার্মেন্ডস, ইত্যাদি গারর্মেন্সে নতুন পোশাক কেনার জন্য ক্রেতাদের সমাগম চোখে পড়ার মত। এবার বাহারী পোশাকের থেকেও বেশী বিক্রি হচ্ছে ছোটদের পোশাক। তবে এবছর দেশী পোশাকের পাশাপাশি ভারতীয় পোশাকের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। আর ভারতীয় মালামালে ছেয়ে গেছে গোটা পাটকেলঘাটার মার্কেট গুলো। মেয়েদের পছন্দের তালিকায় জামাদানী শাড়ী, লেহেঙ্গা, থ্রি-পিছ,খদ্দর,মনিপুরী,রাজগুরু,বলুচরী, অপর দিকে ছেলেদের জিন্স, গ্যাবাডিং, চায়না গেঞ্জী,বাহুবলী ২ সহ রকমারী ডিজাইনের পোশাক রয়েছে। টেইলাসের দোকান গুলোতে ভিড় লক্ষনীয় মালিক এবং কারিগররা সকাল আটটা থেকে রাত একটা পর্যন্ত সমান ভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এছাড়া বিভিন্ন প্রকারের কসমেটিক্স-প্রসাধনী সামগ্রী উল্লেখযোগ্য হারে বেচাকেনা হচ্ছে। তবে ক্রেতাদের অভিযোগের অন্ত নেই। সকল ক্রেতা ও বিক্রেতাদের একই কথা কেনাকাটা যেমনই হোক পবিত্র ঈদুল আযহা বয়ে আনবে সবার মাঝে আনন্দ ও অনাবিল শান্তি।
##