পাটকেলঘাটায় কাঁচা মরিচের কেজি ২২০!


812 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাটকেলঘাটায় কাঁচা মরিচের কেজি ২২০!
আগস্ট ২৯, ২০১৫ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 
মাহফুজুর রহমান মধু, পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি :
তালা উপজেলার সর্বত্রই কাঁচা বাজারের সকল নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে । অল্প কয়েক দিনের ব্যবধানে কাচা বাজার অশান্ত হয়ে উঠেছে । পাইকারী বাজারে পন্যের দাম বেশির অজুহাতে খুচরা বিক্রেতারা দাম বাড়াচ্ছে। বাজারে  শাক-সবজি সহ কাঁচামালের দাম আকাশ চুম্বি। এতে অস্বস্তিতে রয়েছে সাধারণ ক্রেতারা। শনিবার  সাতক্ষীরা জেলার সর্ববৃহৎ বাণিজ্য কেন্দ্র পাটকেলঘাটা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি কেজি পটল ৪০টাকা, বেগুন ৭০ টাকা, শসা ৩০ টাকা, উচ্ছে ৬০ টাকা, পুঁইশাক ২০ টাকা, ওল ৫০ টাকা, কাঁচা মরিচ ২২০ টাকা, আলু ২৩ টাকা, কাঁচ কলা ৩০ টাকা, পেয়াজ ৮০ টাকা, রসুন ৬০ টাকা, গাজর ৫০টাকা, ঝিঙা ৪০টাকা, কাকরল ৫০টাকা ভেন্ডি ৪০টাকা, পেঁপে ২৫টাকা, টমেটো ৭০টাকা,। এছাড়া কাচাবাজার অন্যান্য শাক-সবজি ও তৈরিতরকারীর দাম আগের তুলনায় বেড়েছে। রমজান মাসে এ সকল জিনিসের দাম অনেক কম ছিল বলে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন। এদিকে বাজারে মাছের সরবরাহ অনেকটা বেড়েছে কিন্তু দাম কিছুটা বেড়েছে। প্রতি কেজি রুই মাছ ২২০ টাকা, কাতলা মাছ ২৫০ টাকা, চিংড়ি মাছ ৪৬০ টাকা কেজি, তেলাপিয়া ১৬০ টাকা,  দেশী মুরগী ২৮০ টাকা, পোল্ট্রি ১৪০ টাকা, গরুর মাংস ৩৫০ টাকা, খাসি ৫০০ টাকা। এছাড়া বাজারে মুসরির ডাল ৯৬ টাকা, বুট ডাল ৪৪ টাকা, ছোলার ডাল ৭০ টাকা, ভৌজ্য তেল সয়াবিন ৮২ টাকা, সুপার ৭২ টাকা, পাম্প তেল ৬৭ টাকা বিক্রি হচ্ছে। ক্রেতারা জানান সরকারের সুষ্ঠ মনিটারিং এর অভাবে বাজারের পন্যের দাম ইচ্ছামত বাড়াচ্ছে কমাচ্ছে ব্যবসায়ীরা এখন বিদ্যুতের দাম ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর অযুহাতে জিনিষের দাম আরেক দফা বাড়ার আশংকা করছেন তারা । শনিবার বাজারের কাচামাল ব্যবসায়ী মানিক জানায় অতিবৃষ্টির কারনে তালার কৃষকরা এবছর তরকারির চাষাবাদ করতে পারেনি , যে কারনে কাঁচা  পন্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। খুচরা ব্যবসায়ী আশরাফুল ইসলাম জানান এলাকার মরিচ না থাকার কারনে বাইরে থেকে আমদানি করতে হচ্ছে যে কারনে দাম বেশি তবে এরকম অবস্থা বেশি দিন থাকবে না বলে আশা করা যাচ্ছে। এদিকে ভূক্তভোগী সাধারণ ক্রেতা তৈলকূপী গ্রামের খালেক গাজী জানান, এবার রমজান মাসে জিনিসপত্রের দাম কিছুটা কম থাকালেও  বর্তমান সময়ে কাঁচা মালের দাম অস্বাভিক, আমাদের মতো সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের পক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষ পত্র  ক্রয় করতে হিমশিম করতে হচ্ছে। তবে কাঁচাবাজারে পণ্যের দাম একটু বেশি হওয়ায় অস্বস্তিতে রয়েছে সাধারণ ক্রেতারা। ভেজাল পন্য সহ বাজার মনিটারিংয়ের ব্যবস্থা চায় ক্রেতা সাধারন।