পাটকেলঘাটায় পঁচা শুটকি মাছের জমজমাট ব্যবসা : জনজীবন অতিষ্ঠ


525 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাটকেলঘাটায় পঁচা শুটকি মাছের জমজমাট ব্যবসা : জনজীবন অতিষ্ঠ
নভেম্বর ১৮, ২০১৮ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অমিত কুমার ::

পাটকেলঘাটার ধানদিয়ার এনায়েত পুরে দীর্ঘ দিন যাবৎ শুটকি পল্লীর হাফিজুর বিশ্বাস,সাত্তার বিশ্বাস,মোঃ হাবু,আজিজুল ইসলাম,মোঃ রুবেল হোসেন সিন্ডিকেট করে পাঁচ জন মিলে গড়ে তুলেছে অবৈধ শুটকি মাছের ব্যবসা।

যার কারনে প্রতিদিন শুটকি মাছের পঁচা গন্ধে প্রতিনিয়ত বাড়ছে নানান রোগবালাই। ক্ষতি হচ্ছে কৃষকের যাবতীয় ফসলের সরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, স্থানীয় ক্ষমতাবান ব্যক্তিদের সাথে হাত মিলিয়ে ও প্রচলিত আইনকে বৃদ্ধাঙ্গালী দেখিয়ে প্রতিদিন পঁচা পোনা সহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ধ্বংস করে, প্রকাশ্যে শুটকি তৈরী করে বাতাসে পঁচা গন্ধ ছড়িয়ে পরিবেশ বিপর্যায়ের মধ্যে বসবাস করছে এলাকাবাসী।

পার্শবর্তী এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে পঁচা মাছ সংগ্রহ করে মেডিসিনের সাহায্যে এখানে শুটকি করা হয় যা জনসাধারন ও পরিবেশের জন্য মারাত্নক হুমকি স্বরুপ। এনায়েতপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দক্ষিণ পাশে অবস্থিত শুটকি মাছের এ কারখানা। যার কারনে বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে কোমলমতি বাচ্চা ছেলেমেয়েরা।
এতে বাদ যায়ইনি ছোট ছোট প্রাইমারী, মাদ্রাসা ও হাইস্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থী সহ নানান বয়সী মানুষজন। স্থানীয় জনসাধারণের কাছ থেকে জানা যায়, শুটকি পল্লীর পাশের রাস্থা দিয়ে ৩/৪টি গ্রামের ছাত্র ছাত্রী ও জন সাধারন চলাচল করে। এ অবৈধ ও নিষিদ্ধ শুটকির পঁচা দূর্গন্ধে আজ আমরা অতিষ্ঠ! এনায়েতপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছোট ছোট ছাত্র ছাত্রীরা জানায়, শুটকি মাছের পঁচা গন্ধে আমারা ঠিক মত ক্লাস করতে পারিনা, বমি হয়, মাথা ঘুরায়, মাঝে মাঝে পেটও খারাপ হয়।
নাম না প্রকাশ করার সত্তে স্কুলের এক শিক্ষক জানায়, কেউ এদের বিরুদ্ধে কোন প্রতিবাদ করেনা। প্রতিবাদ করলে জীবন নাশের হুমকি দেয়। এ বিষয়ে শুটকি পল্লীর হাফিজুর বিশ্বাস ও সাত্তার বিশ্বাসের কাছে জানতে চাইলে বলেন, আমরা সব কিছু ম্যানেজ করেই শুটকির কারখানা চালাই,তাছাড়া আমাদের এলাকায় আমাদের উপরে কথা বলবে এমন কেউ নেই।প্রশাসন সহ সব কিছু ম্যানেজ করা। শুটকি পল্লীর অনুমোদন আছে কি না, প্রশ্নের উত্তরে বলেন, আমি ইউনিয়ন পরিষদের থেকে ট্রেড লাইসেন্স এনে এ কাজ করি, থানা পুলিশ প্রশাসনের উপর দোষ চাপিয়ে দেয় শুটকি পল্লীর  হাফিজুর বিশ্বাস ও সাত্তার বিশ্বাস। তাদের এ অদৃশ্য শক্তি কোথা থেকে আসছে তা নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন।

এ বিষয়ে পাটকেলঘাটা থানার ওসি মোঃ রেজাউল ইসলাম রেজা বলেন,এসবের কোন অনুমতি দেওয়া হয়নি।।

এ বিষয়ে তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরিন এর কাছে এ অবৈধ শুটকি পল্লীর কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন এটা আমার বিষয় নই আর এরকম কোন অনুমোদন আইনের বাইরে।