পাটকেলঘাটা সংবাদ ॥ পাটকেলঘাটায় মুরগীর ফার্ম করে গৃহবধু জাহিদা স্বাবলম্বী


811 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাটকেলঘাটা সংবাদ ॥ পাটকেলঘাটায় মুরগীর ফার্ম করে গৃহবধু জাহিদা স্বাবলম্বী
আগস্ট ১৮, ২০১৫ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

মাহফুজুর রহমান মধু ,পাটকেলঘাটা :
বুদ্বিমত্তার সাথে কঠোর পরিশ্রম করলে জীবনে সফলতা পাওয়া যায়। দারিদ্রের নিষ্টুরতা দমাতে পারেনি আতœপ্রত্যয়ী সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানার মেলেকবাড়ী গ্রামের আব্দুল হান্নানের স্ত্রী জাহিদা বেগম(৪৫) কে। মুরগীর ফার্ম করে তিনি এখন স্বাবলম্বী। অর্থাভাবে অল্প কিছু মুরগির বাচ্চা দিয়ে এই ব্যবসা শুরু করেন তিনি। প্রয়োজনীয় পুঁজির সরবরাহ পেয়ে মাত্র চার বছরের ব্যবধানে তিনি এখন ছোটবড় ৩টি ফার্মের মালিক এবং স্থানীয় মেলেকবাড়ি বাজারে তার নিজস্ব মুরগীর দোকানও আছে। তাদের ৩টি ছেলে-মেয়ে এবং স্বামী-স্ত্রী মিলে ৫জনের সংসার। তাদের সংসারের যাবতীয় খরচ ও ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার ব্যয় বহন করছেন এই ফার্মের উপার্জন দিয়ে।
খামারী জাহিদা বেগম জানান, তিনি বাড়ির আঙ্গীনায় স্বল্প পরিসরে লেয়ার মুরগীর(ডিম পাড়া) দিয়ে তার ফার্ম শুরু করেন। প্রতিটি ত্রিশ টাকা দরে পথম পর্বে একশটি লেয়ার মুরগীর একদিনের বাঁচচা খামারের  জন্য ক্রয় করেন। খাবার ও ঔষধসহ প্রতিদিন দুইশত টাকা খরচ হতে থাকে। বাঁচ্চার বয়স সাড়ে পাঁচ মাস হলে ডিম পাড়া শুরু করে। একদিকে প্রতিদিন খরচ সংকুলানো প্রায় অসম্ভব অন্যদিকে মাত্র ১শ মুরগীর জন্য গড় খরচ বেশি হওয়ায় পুঁজি বাঁচানো সম্ভব হয়ে ওঠেনি তার। পরবর্তীতে তিনি এনজিও সংস্থা মুসলিম এইড তালা উপজেলা শাখা থেকে সহজশর্তে প্রথম দফায় বিশ হাজার টাকা ও পরবর্তীতে দুই লক্ষ চল্লিশ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে তার ফার্মের কাজে লাগিয়েছেন। বর্তমানে তিনি তার ফার্মে ২হাজার ৫শ মুরগীর বাচ্চা নিয়ে পালন করছেন। জাহিদার সংসার এখন পূর্বের তুলনায় অনেক স্বচ্ছল। তার ঐকান্তিক ইচ্ছা, ফার্মের পরিধি আরও বৃদ্ধি করে সেখানে ৮-১০ জন বেকার লোকের কর্মসংস্থানও রয়েছে। স্থানীয়ভাবে জাহিদা একজন পরিশ্রমী, সফল, আদর্শ এবং স্বাবলম্বি নারী হিসাবে পরিচিত। জাহিদার ফার্ম দেখে এলাকায় মুরগী চাষে ব্যপক সাড়া পড়েছে। থানার অনেক স্বল্প পুজির মহিলারা এখন স্বাবলম্বি হতে মুরগী চাষের দিকে ঝুঁকে পড়েছেন।
##
শিক্ষক সাধন কুমার ঘোষ আর নেই

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি : কলারোয়া উপজেলার কয়লা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাধন কুমার ঘোষ(৫৫) হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্দ হয়ে গত সোমবার রাতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তার গ্রামের বাড়ী পাটকেলঘাটা থানার সৈয়দপুর গ্রামে, মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী,দু সতœান রেখে মারা গেছেন। মঙ্গলবার সকাল ৯টায় পাটকেলঘাটা সরুলিয়া শশ্মানে তার অন্ত্যষ্ঠিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হয়। এই সময় উপস্থিত ছিলেন সরুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বিশ্বাস আতিয়ার রহমান, শিক্ষক অমর চন্দ্র ঘোষ, ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ সরদার, কল্যান ঘোষ, জয়নাল মেম্বর, বিশ্বনাথ ঘোষ।

##

পাটকেলঘাটা হারুণ-অর রশিদ ডিগ্রি কলেজে চুরি
পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি :
পাটকেলঘাটা হারুণ-অর রশিদ ডিগ্রি কলেজে চুরি সংঘটিত হয়েছে। জানা গেছে গত সোমবার রাতে অফিস ও উপাধ্যক্ষের কক্ষের তালা ভেঙে দুটি ল্যাপটপ, হিসাব রক্ষকের ড্রয়ারে রাখা ৬হাজার ৬শ টাকা ও মুল্যবান কাগজ পত্র তছনছ করে চলে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ,পাটকেলঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তরিকুল ইসলাম জানান কলেজ রেখে নাইটগার্ড বাড়ীতে ঘুমাচ্ছিল এঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নাইট গার্ড হাফিজকে আটক করা হয়েছে।