পারুলিয়া এসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন


289 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পারুলিয়া এসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন
এপ্রিল ২৬, ২০১৬ দেবহাটা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার পারুলিয়া এসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক লিয়াকত হোসেন ও ধর্মীয় শিক্ষক আব্দুল লতিফ হোসেনের নির্যাতনে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে আছিফ শেখ নামে নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় বিচার দাবি করে মঙ্গলবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই শিক্ষার্থীর মা জাহানারা খাতুন।
এ সময় লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, গত ৯ মার্চ ইংরেজি শিক্ষক লিয়াকত হোসেন এক ছাত্রীর সাথে নিরিবিলি পরিবেশে কথা বলতে থাকে। বিষয়টি আছিফ শেখ দেখে ফেলায় তাকে শিক্ষক লিয়াকত হোসেনের রোষানলে পড়তে হয় এবং ওইদিনই ইংরেজি শিক্ষক লিয়াকত হোসেন ধর্মীয় শিক্ষক আব্দুল লতিফ হোসেনের কাছে থাকা লাঠি নিয়ে আছিফকে ব্যাপক মারপিট করে। তাকে টেবিলের নিচে মাথা ঢুকিয়ে দিয়ে পিটানো হয়। এক পর্যায়ে সে অজ্ঞান হয়ে পড়লে ওই শিক্ষকদ্বয় শ্রেণিকক্ষ ত্যাগ করে। পরে প্রতিবেশিদের দ্বারা খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করার পর সে প্রচ- জ্বরে আক্রান্ত হয়। দিন দিন অবস্থার অবনতি হলে তাকে গত ১২ মার্চ সখিপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করা হয়। বর্তমানে সে মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ধীরাজ মোহনের অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, এঘটনায় গত ২৫ এপ্রিল ১৬ তারিখে অভিযুক্ত দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত চিপ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং সিআর ২৫/১৬(দে:)। আদলত আসামীদের বিরুদ্ধে সমন জারি করছে।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি ছেলেকে নির্যাতনের অভিযোগে ইংরেজি শিক্ষক লিয়াকত হোসেন ও ধর্মীয় শিক্ষক আব্দুল লতিফ হোসেনের শাস্তির দাবি জানান।  ##