পার্ল হারবারে হামলার চেয়েও করোনার আঘাত মারাত্মক : ট্রাম্প


116 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পার্ল হারবারে হামলার চেয়েও করোনার আঘাত মারাত্মক : ট্রাম্প
মে ৭, ২০২০ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, দেশটির ওপর ইতিহাসের সবচেয়ে ‘মারাত্মক হামলা’ করেছে নভেল করোনাভাইরাস। আর সে জন্য আবারও চীনকে অভিযুক্ত করেছেন তিনি। স্থানীয় সময় বুধবার হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলনে এমন মন্তব্য করেন ট্রাম্প।

বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ট্রাম্প করোনার আঘাতকে পার্ল হারবারে হামলার চেয়েও ‘মারাত্মক’ বলে অভিহিত করেছেন। ১৯৪১ সালের ৭ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের পার্ল হারবার নৌ-ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালায় জাপান। এই হামলার পরই আনুষ্ঠানিকভাবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে যোগ দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

এমনকি দুই দশক আগে টুইন টাওয়ারে হামলার চেয়েও করোনার আঘাতকে শক্তিশালী বলে মনে করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট। টুইন টাওয়ারে হামলার পর আফগানিস্তান ও ইরাকে হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র।

এবার বৈশ্বিক এই মহামারির জন্য চীনকে দোষারোপ করতে শরু করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। জবাবে বেইজিং বলছে, যুক্তরাষ্ট্র নিজের ঘরে মহামারির সংকট সামলাতে না পেরে চীনকে অভিযুক্ত করছে।

গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর তা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে। যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত হয়েছেন ১২ লাখ মানুষ। তাদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৭৩ হাজার মানুষের।

ট্রাম্প বলেন, অতীতে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর কখনও এমন ভয়ানক হামলা হয়নি। করোনার এ হামলা পার্ল হারবার ও টুইন টাওয়ারে হামলার চেয়েও ভয়ানক। তবে এই মহামারি রোধ করা যেত। যেখানে ভাইরাসের উৎপত্তি, সেই চীনেই তা রোধ করা সম্ভব হতো। কিন্তু তা করা হয়নি।

এক সাংবাদিক ট্রাম্পের কাছে জানতে চান, তিনি এই মহামারি পরিস্থিতিকে যুদ্ধ হিসেবে দেখছেন কিনা। জাবাবে প্রেসিডেন্ট বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের শত্রু করোনাভাইরাস মহামারি, চীন নয়।

এদিকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বুধবার ফের বলেছেন, চীন করোনাভাইরাসের সংক্রমণের তথ্য লুকাতে চেয়েছিল এবং ভাইরাসটি উহানের একটি ল্যাবেই তৈরি। যদিও দেশটির শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্থনি ফুচি বলেছেন, করোনাভাইরাসের উৎস প্রকৃতিতে। পরে সেটি কোনো পশু থেকে মানুষের শরীরে প্রবেশ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র কেন চীনকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর জন্য দোষারোপ করছে? এর উত্তর পাওয়া যেতে পারে একটি সমীকরণে।

আগামী নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। করোনাভাইরাস এবং এর ফলে সৃষ্ট অর্থনৈতিক মন্দার কারণে সে নির্বাচনে ট্রাম্পের দ্বিতীয় দফায় জিতে আসার পথটা কঠিন হচ্ছে দিন দিন।

গত মাসে পিউ মতামত জরিপে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ চীনের প্রতি নেতিবাচক মনোভাব পোষণ করছেন। চীনবিরোধী কথা বলে ট্রাম্প এই মানুষগুলোকে দলে টানতে চাচ্ছেন। কারণ আরেক জরিপে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের বেশিরভাগ মানুষ মহামারি মোকাবিলায় ট্রাম্পের ধীর গতির পদক্ষেপকে পছন্দ করেননি।