পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে গাবুরার রাশিদা এখন শ্যামনগর হাসপাতালে


372 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে গাবুরার রাশিদা এখন শ্যামনগর হাসপাতালে
জুন ৩, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ,শ্যামনগর :
চারজনের পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে গাবুরার চাদনী মুখা গ্রামের স্বামী পরিতক্তা রাশিদা বেগম(২৬) এখন শ্যামনগর হাসপাতালে চিকিৎসান্তে জীবন পার করছেন।  হাসপাতালে চিকিৎসারত রাশিদা বেগম জানান, ( যাহা রেকর্ডিং আছে) গাবুরার চকবারা গ্রামে বোনের বাড়ীতে বেড়াতে গেলে ওই এলাকার কিছু নারীলোভীরা বাড়ীর অন্যান্যদের অবরুদ্ধ করে রেখে রাশিদাকে জোর পুর্বক পাশবিক নির্যাতন চালায়। সে জানায় চকবারা গ্রামের বখতিয়ার রহমান, রমজান আলীর ছেলে রুহুল আমিন ও গহর মেম্বরের ছেলে আবু জাহের সহ চারজন এঘটনার সাথে জড়িত বলে প্রকাশ্যে সকলের সামনে সে এ তথ্য দেয় । জানা গেছে গত মঙ্গলবার রাতে বোনের বাড়ীতে তাকে পেয়ে কুচক্রী নারী লোভীরা এঘটনা ঘটায়। পরে এলাবাসীর সহযোগীতায় তাকে শ্যামনগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদিকে এঘটনা জানার পর শ্যামনগর থানার এস আই নাজমুল হুদা সরেজমিন হাসপাতালে ছুটে আসেন। হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ভর্তিরত রাশিদার সকল স্টেটমেন্ট লিপি বদ্ধ করেন।

ঘটনার সত্যতা স্বিকার করে তিনি বলেন,শ্যামনগর থানায় আসামীদের বিরুদ্ধে ধর্ষন আইনে মামলা হয়েছে। এদিকে গাবুরার ইউপি সদস্য আবিয়ার রহমান বলেন, ধর্ষনের ঘটনা সত্য নয়, তবে ওই বাড়ীতে দু” জন লোক বেড়াতে আসছিল তাদের কাছ থেকে এই ছেলেরা কিছু টাকা আর মোবাইল ফোন নিয়েছিল, যাহা আমি পরে বিচার করে ফেরত দিয়েছি।এঘটনার সাথে আমার ভাই জড়িত থাকায় প্রতিপক্ষরা হয়রানী করার চেষ্টা করছে।