পাহাড়ি ঢলে ডুবে গেছে রাঙামাটির ঝুলন্ত সেতু


325 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পাহাড়ি ঢলে ডুবে গেছে রাঙামাটির ঝুলন্ত সেতু
আগস্ট ১৯, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

সীমান্তের ওপার থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে আকস্মিকভাবে বেড়ে গেছে কাপ্তাই হ্রদের পানি। এতে ডুবে গেছে রাঙামাটিতে পর্যটকদের আকর্ষণের অন্যতম কেন্দ্র ঝুলন্ত সেতুটি। রোববার থেকে সেতুর পাটাতন কয়েক ইঞ্চি পানিতে ডুবে আছে।

পর্যটন কর্তৃপক্ষ পর্যটকদের চলাচল নিরাপদ রাখতে এবং ঝুলন্ত সেতু ভেঙে যাওয়ার ঝুঁকি এড়াতে যে কোনো সময় সেতুর ওপর দিয়ে চলাচল বন্ধ করে দিতে পারে। এতে করে ঈদের টানা কয়েক দিনের ছুটিতে রাঙামাটিতে বেড়াতে আসা পর্যটকরা আকর্ষণীয় ঝুলন্ত সেতুর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন না।

সত্তরের দশকের শেষ দিকে সরকার রাঙামাটি জেলাকে পর্যটন এলাকা হিসেবে ঘোষণা করে। ১৯৮৪ সালের দিকে পর্যটন করপোরেশন পর্যটকদের সুবিধার্থে ও মনোরঞ্জনের জন্য দুই পাহাড়ের মাঝখানে তৈরি করে আকর্ষণীয় ঝুলন্ত সেতু। এই ঝুলন্ত সেতুর পূর্বদিকে তাকালে দেখা মেলে অপূর্ব স্বচ্ছ জলরাশিসহ ছোট-বড় বিস্তীর্ণ নৈসর্গিক সবুজ পাহাড়। গত দু’দিনের বৃষ্টিপাতে সীমান্ত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে কাপ্তাই হ্রদের পানির উচ্চতা অস্বাভাবিক বেড়ে গিয়ে ঝুলন্ত সেতুর পাটাতন কয়েক ইঞ্চি পানির নিচে ডুবে যায়।

রাঙামাটি পর্যটন নৌযান ঘাটের ইজারাদার রমজান আলী জানান, সদ্য বর্ষা শেষে উজান থেকে পাহাড়ি ঢল নামছে। ফলে কাপ্তাই হ্রদের পানির উচ্চতা দ্রুত বাড়ছে। সেতুর পাটাতনের কিছু কিছু অংশ পানিতে ডুবে গেছে। তবে লোকজন এখনও সেতুর ওপর দিয়ে হাঁটাচলা করছে।

রাঙামাটি সরকারি পর্যটন কমপ্লেপের ব্যবস্থাপক সৃজন বিকাশ বড়ূয়া জানান, সেতুর অনেকাংশ পানিতে ডুবে গেলেও সেতুর ওপর চলাচল এখনও পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হয়নি। তবে পর্যটকদের চলাচল নিষেধ করা হবে তাদের নিরাপত্তার স্বার্থেই।