পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার মানুষ কারো কাছে ধর্না না দিয়ে নিজেরাই নেমেছে রাস্তা সংস্কারে !


365 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার মানুষ কারো কাছে ধর্না না দিয়ে নিজেরাই নেমেছে রাস্তা সংস্কারে !
জুন ২৯, ২০২০ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

॥ আশরাফুল আলম ॥

পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার মানুষ জলাবদ্ধতা ও চলাচলের অনুপযোগী রাস্তায় অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। জনপ্রতিনিধি, প্রশাসনের কাছে তারা বার বার ধর্ণা দিয়েছে। গত কয়েক বছর ধরে ধর্না দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তারা শুধু আশার বানী শুনিয়ে আসছেন বার বার। কাজের কাজ কিছুই করেন না। অবশেষে তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, বেঁচে থাকতে হলে নিজেদের কাজ নিজেদেররই করতে হবে। তাই কারো উপর নির্ভর না করে তারা নিজেদের সব কাজকর্ম ফেলে স্থানীয় ভাবে চাঁদা তুলে নিজেরাই নিজিদের চলাচলের রাস্তা সংস্কারে নেমে পড়েছেন।

পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার মানুষেরা ভাটা থেকে ইট বহন করে সেই ইট রাস্তায় দিচ্ছেন এবং সেগুলো সাজিয়ে জনসাধারণের চলাচলের উপযোগী করছেন।

কারো কাছে যাবেন না তারা। বহু গেছেন। বহু প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মেয়র কাউন্সিলরসহ জনপ্রতিনিধিরা। প্রতিবারই নাকি তারা বাজেট দেন। কিন্তু শেষ মূহুর্তে নাকি সেই টাকা কেটে যায়।তাই এলাকাবাসীর সাফ কথা আর কারো কাছে যাওয়া নয়। আমরাই আমাদের সমস্যা সমধান করার চেষ্টা করবো।ক্ষোভ দুঃক্ষ অভিমান আর তীব্র ক্রোধের সাথে এই কথাগুলো একনাগাড়ে বলে গেলেন পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার লোকজন।

সোমবার সকাল ১০টার দিকে ভয়েস অব সাতক্ষীরার স্টাফ রিপোর্টার আশরাফুল আলম পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়া এলাকায় গেলে তাকে সামনে রেখে এসব কথা বলেন স্থানীয় লোকজন।

এব্যাপারে সাতক্ষীরা পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সেলিম হোসেন ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে জানান, আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছি যাতে করে পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার মানুষেরা এই সমস্যার স্থায়ী সমাধান পায়।এই রাস্তা সংস্কারের জন্য দু-তিন বার আমরা বাজেট করে এলজিডি ও ঢাকাতে কাগজপত্র পাঠিয়েছি।কিন্তু নানা প্রতিবন্ধকতায় এই রাস্তা সংস্কারের কাজটি এখনও হয়ে ওঠেনি।আমরা আশাবাদী দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার এই রাস্তা সংস্কারের কাজটি শুরু করতে পারবো ইনশাল্লাহ।

পুরাতন সাতক্ষীরার কুলিন পাড়ার মানুষেরা এই বিপর্যয়কর অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে এবং রাস্তা সংস্কারের কাজ দ্রুত শুরু এবং জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য উদ্ধর্তন কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

#