পুলিশ সম্পর্কে বেগম জিয়ার মন্তব্য সঠিক নয় : আইজিপি


345 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
পুলিশ সম্পর্কে বেগম জিয়ার মন্তব্য সঠিক নয় : আইজিপি
জুলাই ৬, ২০১৫ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডেস্ক :
পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক বলেছেন, পুলিশকে নিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার মন্তব্য সঠিক নয়। তার অভিযোগের কোন প্রমাণ নেই।
দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের কাছে থেকে এমন বিরূপ মন্তব্য প্রত্যাশিত নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, পুলিশকে নিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার অভিযোগ মিথ্যা।
সম্প্রতি ‘বিএনপি’র লাগাতার অবরোধ ও হরতাল চলাকালে পুলিশ পেট্রোল বোমা ছুড়েছে’ দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার এমন মন্তব্য অপ্রত্যাশিত ও অগ্রহণযোগ্য বলে আইজিপি উল্লেখ করেন।
রবিবার দুপুরে পুলিশ সদর দফতরে ঈদুল ফিতর ও রমজান উপলক্ষে নিরাপত্তা সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
আইজিপি বলেন, বিএনপি’র লাগাতার আন্দোলনে কারা পেট্রোলবোমা ছুড়েছে, ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে তা সবাই জানে। এদের অনেকে ধরা পড়েছে এবং আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছে। এরা কোন কোন দলের সদস্য সে রেকর্ডও পুলিশের কাছে রয়েছে।
মহাসড়কে কোনো ধরনের চাঁদাবাজি হবে না বলে শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়েছেন পুলিশ প্রধান এ কে এম শহিদুল হক।
তিনি বলেন, রমজানের শুরু থেকে পুলিশ কঠোর অবস্থানে থাকায় এখন পর্যন্ত হাইওয়েতে কোনো ধরনের চাঁদাবাজির অভিযোগ পাওয়া যায়নি। রাজধানী ঢাকার ভেতরেও আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। আগামীতেও যেন আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং হাইওয়েতে যান চলাচল স্বাভাবিক থাকে সে ব্যবস্থা নিতে পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
রাজধানীর যানজট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ঈদ কেন্দ্রে করে রাজধানীর বাইরে থেকে অনেক মানুষ গাড়ি নিয়ে কেনাকাটার জন্য ঢাকায় আসেন। তখন গাড়ির সংখ্যা বৃদ্ধি পায়। সেজন্য যানজটও বাড়ে। তবে পুলিশ যানজট নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাচ্ছে। পুলিশের কনস্টেবল থেকে কমিশনার পর্যন্ত সবাইকে যানজট নিরসনের জন্য বিশেষ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’
তিনি বলেন, ঈদের ছুটিতে যারা বাড়ি যাবেন তাদের বাসাতেও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নজর রাখবে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন জোনের ডিসিদেও সেভাবে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
টিকিট কালোবাজারি প্রসঙ্গে পুলিশ প্রধান বলেন, ‘টিকিট কালোবাজারি রুখতে পরিবহন মালিক, শ্রমিক নেতা ও সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে বৈঠক করেছি। কালোবাজারি রুখতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কাজ করছে। কেউ যদি টিকিট কালোবাজারি করে তবে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।