প্রতাপনগরে জোর পূর্বক জমি দখল করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ


220 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
প্রতাপনগরে জোর পূর্বক জমি দখল করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ
মে ১১, ২০২০ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট:
করোনা ভাইরাসের কারণে শহরে আটকা পড়া আশাশুনির চাকলা গ্রামের আনোয়ার ঢালীর গ্রামের বাড়ির জমি জোর পূর্বক দখল করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ, একই উপজেলার দীঘলাআইট গ্রামের আকবার জোয়াদ্দার করোনা ভাইরাসের কারণে যখন সবকিছু স্থবির, ঠিক সেই মুহূর্তে আনোয়ার ঢালীর গ্রামের বাড়ির জমি জোর পূর্বক দখল করে ঘর নির্মাণ করছেন।

সূত্র জানায়, আশাশুনি উপজেলার চাকলা গ্রামের মজিবর হোসেনের ছেলে আনোয়ার ঢালী ২০১৬ সালে তেলিখালী মৌজায় জেল নং ১৫৮, এস এ খতিয়ান নং ২১১, সাবেক এস এ দাগ নং ২১৪, হাল দাগ নং ৭২৯ ও সাবেক এস এ ২১৩ দাগের ২ বিঘা জমি ক্রয় করেন।

আনোয়ার ঢালীর ৬৪ শতক জমির মধ্যে ৩২ শতক জমি দখলে থাকলেও অপর ৩২ শতক জমি নিয়ে দীঘলাআইট গ্রামের অহেদ জোয়াদ্দারের ছেলে আকবার জোয়াদ্দারের সাথে দীর্ঘদিনের বিরোধ চলে আসছে।
আনোয়ার ঢালী জানান, গ্রামের শালিসে কোর্টের রায় না পাওয়া পর্যন্ত দুইপক্ষকে জমিতে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলেও সেই রায় না মেনে ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, অমিমাংসিত জমিতে জোর করে বাড়ি নির্মাণের কাজ করছেন আকবার জোয়াদ্দার। একই সাথে গ্রামের বাড়িতে থাকা আনোয়ার ঢালীর সন্তানদের হুমকি দিচ্ছে আকবার জোয়াদ্দার।

এ প্রসঙ্গে সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ মোড়ল বলেন, স্থানীয়দের করা বিচারসহ চেয়ারম্যানের নির্দেশ অমান্য করে ঘর নির্মাণ চালিয়ে যাচ্ছে আকবার জোয়াদ্দার। সে কাউকে মানছে না।

প্রতাপনগর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউ পি সদস্য আসলাম গাজী বলেন, আনোয়ারের পরিবার গ্রামে না থাকার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে শালিসের বিচার অমান্য করে আকবার ঘর নির্মাণ করছে। আকবার কারো কথা না শুনে জমির প্রকৃত মালিক না হয়েও জবর দখল করে ঘর নির্মাণ করছে। #