প্রতাপনগরে ভূমিহীন কৃষকদের স্থায়ী বন্দোবস্ত জমি জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ


420 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
প্রতাপনগরে ভূমিহীন কৃষকদের স্থায়ী বন্দোবস্ত জমি জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ
মে ২২, ২০১৭ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার:
আশাশুনির প্রতাপনগরের ভুমিদস্যু রফিকুল ইসলাম বুলির বিরুদ্ধে ভূমিহীন কৃষকদের স্থায়ী বন্দোবস্ত পাওয়া ১৪টি ভূমিহীন পরিবারের ১৪ একর জমি জোরপূর্বক দখল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। ওই ভূমিহীন অসহায় পরিবার গুলির নামে করা হচ্ছে একের পর এক মামলা।  এসব মিথ্যা মামলা ও তাদের সম্পদ ফিরে পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।
কুড়িকাহুনিয়া গ্রামের আব্দুল রশিদ, আব্দুল মালেক ও বাবুর আলীসহ একাধিক ব্যক্তির লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, শ্রীপুর মৌজায় ১৪টি ভূমিহীন পরিবার ১৪ একর জমি ডিসি আর নিয়ে বাধ দিয়ে ঘের করে আসছে। ঠিক মাছ ধরার কয়েক দিন আগে কুড়িকাহুনিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের পুত্র বিএনপির নেতা ও ভূমিদস্যু রফিকুল ইসলাম বুলিসহ তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে সমস্ত ঘের দখল করে লক্ষ লক্ষ টাকা লুট করে নেয়। বিষয়টি সাথে সাথে ইউপি চেয়ারম্যান কে জানানো হলে চেয়ারম্যান পুনরায় ভূমিহীন দের দখল করে দেন। এর পর শুরু হয় মামলা হামলা। সন্ত্রাসী বুলি তার বাহিনী দিয়ে ভূমিহীনদের মারপিট ও মিথ্যা মামলা দায়ের করে।  তারা আরো জানায়, সে সম্প্রতি এক বিধাব মহিলার ভিটা বাড়ি দখল করে নিয়েছে। এটিকে ভিন্ন খাতে নিতে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে বুলি।
ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন জানান, ভূমিহীনদের সম্পদ দখল ও মিথ্যা মামলা দিয়ে  একের পর এক হয়রানী ও লক্ষ লক্ষ টাকার আত্মসাৎ করেছে । তার বিরুদ্ধে নাশকতার  অভিযোগ সহ একাধিক অভিযোগে মামলা রয়েছে।  তারপরেও বীর দাপটে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করেছে।
তবে অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম বুলি জানান, তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার করা হচ্ছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুষমা সুলতানা জানান, ভূমিহীনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত কৃত জমি দখল বুঝিয়ে দেওয়ার  নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।