প্রবল বর্ষন ও উজানের পানিতে তালা উপজেলার বিস্তীর্ন এলাকা প্লাবিত


461 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
প্রবল বর্ষন ও উজানের পানিতে তালা উপজেলার বিস্তীর্ন এলাকা প্লাবিত
আগস্ট ১, ২০১৫ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

মাহফুজুর রহমান মধু, পাটকেলঘাটা :
প্রবল বর্ষন ও উজান থেকে নেমে আসা পানিতে তালার বিস্তীর্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। পানিতে তালা উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নের  ৩০হাজার লোক পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। পানিতে ডুবে সম্পূর্ন নষ্ট হয়ে গেছে বীজ তলাসহ প্রায় দুই হাজার বিঘা জমির আমন ধান। ভেসে গেছে উপজেলার শত শত একর মৎস্য ঘের,ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কয়েক লক্ষ টাকার, তালা উপজেলা পরিষদ চত্বরে জমেছে হাঁটু পানি। কয়েকটি অফিসের মধ্যে পানি ঢুকে পড়ায় কাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। বন্দ হয়ে গেছে কয়েকটি বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম প্রবল বৃষ্টিপাতের কারনে  জনপদের মানুষ ঘরবড়ি ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছে বিভিন্ন স্কুল মাদ্রাসাসহ অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্রে। ভেঙে পড়েছে স্যানিটেশন ও সুপেয় পানির ব্যবস্থা।
জানা গেছে বেতনা নদীর ভেড়ীবাধ ভেঙ্গে প্রবল বেগে পানি তালা উপজেলার নগরঘাটা বিলে প্রবেশ করছে যে কারনে নতুন করে নগরঘাটা এলাকার অনেক বাড়ীতে প্রবেশ করেছে  তালা উপজেলার ধানদিয়া ইউনিয়নের উত্তর সারসা, দক্ষিণ সারসা, ওমরপুর, নগরঘাটা ইউনিয়ানের নিমতলা,গাবতলা,দক্ষিন নগরঘাটা, রাঢ়ীপাড়া, ভবানীপুর, কুমিরা মালোপাড়া, মন্দির খোলা, জুজখোলা, কাশিপুর, পুটিয়াখালী, পারকুমিরা,কালীবাড়ী, ঘোনা, ইসলামকাটি, নারানপুর, কাজীডাংঙা ঘোষপাড়া, গৌরী ঘোনা, খলিল নগর ইউনিয়নের প্রায় সবকটি গ্রামে পানি প্রবেশ করেছে এর মধ্যে ঘোষনগর, গঙ্গারামপুর,পূর্ব নলতা, ডাংঙ্গানলতা, গোনালী, হরিশচন্দ্রকাটি, ঘোনা, খরাইল, কানাইদিয়া, চরকানাইদিয়া, কৃষ্ণকাটি, কলাপোতা ও মামুদপুরসহ ৪০টি গ্রামের নিম্নাঞ্চলের অধিকাংশ বাড়ি তলিয়ে গেছে। এলাকার বেশ কিছু বাড়ির ভিতরে পানি উঠে গেছে। পানিতে তলিয়ে গেছে কৃষকের আমন বীজতলা। নষ্ট হয়েছে  শাকসবজির ক্ষেতও। এছাড়া তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসের নীচে, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার অফিস, কৃষি অফিস, ভিতরে হাঁটু পানি জমেছে। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার অফিস, উপজেলা প্রকৌশলীর অফিস(এলজিআরডি), উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবন ও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের অফিসের সামনে হাটু পানি জমেছে।কপোতাক্ষের পানি পাটকেলঘাটা বাজারে প্রবেশ করেছে। বাজারের ধান হাট,পেয়াজ রসুন হাট, চাউল পটিতে হাটু পরিমান পানি জমে গেছে। বিপাকে পড়েছে ব্যাবসায়িরা।
তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহবুবুর রহমান জানান,অতি বৃষ্টি ও  কপোতাক্ষের পানি অন্যত্র সরতে না পারায় উপকুলের গ্রামগুলি প্লাবিত হচ্ছে।এ পর্যন্ত ১০ মেট্রিকটন চাল বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। সবচেয়ে ক্ষতি গ্রস্থ ইউনিয়ন তালার খলিল নগর ওজালাল পুরের কয়েকটি গ্রাম। বৃষ্টি না কমলে অবস্থা আরো খারাব হবে। তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার জানান এপর্যন্ত তালা উপজেলার প্রায় ২হাজারের বেশী পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে, পানি প্রবেশ করেছে, ২৫টির মত প্রাথমিক বিদ্যালয় ৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ১টি কলেজ । ইতি মধ্যে অনেক পরিবার বাড়ী ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে। পানি নিষ্কাষনের জন্য ব্যবস্থা চলছে।