প্রেম মানে না কাটাবন : শ্যাামনগরে চার সন্তানের জননীকে ফিরে পেতে চায় তার স্বামী


574 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
প্রেম মানে না কাটাবন : শ্যাামনগরে চার সন্তানের জননীকে ফিরে পেতে চায় তার স্বামী
ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৭ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ,শ্যামনগর ::
প্রেম মানে না কাটাবন । শ্যামনগর চিংড়ী খালী গ্রামের করিম গাজী ছেলে শফিকুল ইসলাম(৪০) প্রতিবেশী খলিলুর রহমানের স্ত্রী চার সন্তানের জননী রাবেয়া খাতুন( ৪৫) কে পরকীয়া প্রেমের ফাদে ফেলে স্বামী সন্তান রেখে ঘর ছাড়তে বাধ্য করে শফিকুল ইসলাম।
স্ত্রী হারা স্বামী খলিলুর রহমানের লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জানা যায়, খলিলুর রহমান একজন দিনমুজুর শ্রমিক হইতেছে।সে কাজের জন্য দীর্ঘ দিন এলাকার বাহিরে থাকার সুবাদে তার স্ত্রী রাবেয়া খাতুন প্রতিবেশী শফিকুলের পরকীয়া প্রেমে পড়ে যায়।
এক পর্য্যায় শফিকুল চার সন্তানের জননী রাবেয়া খাতুন কে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সম্প্রতি ফুসলিয়ে বাড়ী থেকে বের করে নিয়ে যায়।
এদিকে চার সন্তানের জননী রাবেয়া খাতুন পরকীয়ার কারনে শফিকুলের হাত ধরে স্বামী সন্তান রেখে বাড়ী থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় মুল্যবান জিনিষ পাত্র সহ নগদ ৮৫ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় বলে খলিলুর রহমান অভিযোগ করেন।
এদিকে এখবর জানতে পেরে খলিলুর রহমান কাজ ছেড়ে বাড়ীতে চলে আসে। এক পর্য্যায়  সন্তানদের মুখের দিকে তাকিয়ে খলিলুর রহমান গ্রামের মাতববরদের মাধ্যমে নিজ স্ত্রীকে ফেরত পাওয়ার দাবী জানায়।একারনে শফিকুল ক্ষিপ্ত হয়ে নানা ধরনের হুমকি ধামকি দিচ্ছে খলিলুর রহমানকে। দরিদ্র খলিলুর রহমান নিরোপায় হয়ে নিজের স্ত্রীকে পেতে এ বার শ্যামনগর থানা পুলিশের দ্বারস্ত হয়েছে। খলিলুর রহমানের ৩মেয়ে ও এক ছেলে মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে জানা গেছে।####