ফলোআপ : তালায় তারক সরকার খুন মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বাদীকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ


430 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ফলোআপ : তালায় তারক সরকার খুন মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বাদীকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ
আগস্ট ৬, ২০১৬ তালা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

বি. এম. জুলফিকার রায়হান, তালা :
বিগত ২০০৭ সালের ২০ ডিসেম্বর দিবাগত রাত ১১টার দিকে জবাই করে খুন করা হয় তালা উপজেলার দোহার গ্রামের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের তারক সরকারকে। দীর্ঘ সময়ের ব্যবধানে মামলার সকল স্বাক্ষীরা খুনের ঘটনার বর্ননা দিয়ে বিজ্ঞ ম্যাজিষ্ট্রেট’র আদালতে কার্য বিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্ধী প্রদান করেছেন। তালা থানা মামলাটির পুলিশ প্রয়োজনীয় তদন্ত শেষে খুনের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছেন। মামলার আসামীরা ইতোমধ্যে আদালত থেকে জামিন নিয়ে এসেছে। উক্ত মামলাটি আদালতে এখনও বিচারাধিন রয়েছে।

এদিকে, খুনের দায় থেকে রক্ষা পেতে এই মামলার আসামীরা বিচারাধিন মামলাটি তুলে নিতে মামলার বাদীকে প্রতিনিয়ত হুমকি প্রদান করছে বলে বাদির অভিযোগ। যে কারনে, মামলার বাদী শ্যামল সরকার তালা থানায় হুমকিদাতাদের বিরুদ্ধে একটি জিডি করেছেন।

নির্মমভাবে খুনের শিকার উপজেলার দোহার গ্রামের তারক সরকারের পুত্র পাষ্টর অমল সরকার জানান, তালা উপজেলার দোহার মৌজার এস.এ ২৩২ নং খতিয়ানের বাস্তভিটার ১.৭৯ একর জমি নিয়ে একই গ্রামের মোকছেদ শেখের সাথে বিরোধ ছিল। ওই বিরোধের জের ধরে মোকছেদ শেখ ও তার পুত্রদের প্রতিনিয়ত হুমকির মূখে সংখ্যালঘু ও হতদরিদ্র তারক সরকার একপর্যায়ে স্বপরিবারে ভারতে চলে যায়। সেখানে কিছুদিন থাকার পর আবারও বাস্তভিটায় ফিরে আসলে মোকছেদ শেখের পুত্ররা নানাবিধ হুমকি-ধামকি দিতে শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর নিজ জমিতে কাজ করার সময় মোকছেদ শেখের পুত্ররা তারক সরকারের পুত্র গ্রাম পুলিশ মাদার দাশকে খুন-জখমের হুমকি প্রদান করে। পরে ২০ ডিসেম্বর দিবাগত রাত ১১টার দিকে নিজ ঘরের বারান্দায় ঘুমান্ত তারক চন্দ্র সরকারকে জবাই করে খুন করা হয়। এ ঘটনায় তারক সরকারের পুত্র শ্যামল সরকার বাদী হয়ে খুনের প্রত্যক্ষ স্বাক্ষীদের দেয়া বর্ননা মতে তালা থানায় একটি হত্যা মামলা (মামলা নং : ০৭, তারিখ : ২১/১২/০৭) দায়ের করেন। মামলায় মোকছেদ শেখের পুত্র মোজাম্মেল হক, তোজাম্মেল হক, মাসুম শেখ, খসরুল শেখ ও মাহমুদুল হককে সহ অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনকে আসামী করা হয়। বর্তমানে বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধিন উক্ত মামলাটি তুলে নেবার জন্য মামলার বাদী শ্যামল সরকারকে হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে- অমল সরকার অভিযোগ করেছেন। হুমকির ঘটনায় শ্যামল সরকার তালা থানায় একটি জিডি (৪৮/১৬) করেছেন। তারপরও আসামীদের অব্যাহত হুমকির মূখে শ্যামল সরকার সহ তার পরিবারের সদস্যরা বর্তমানে আতংকের মধ্যে রয়েছে। এঘটনায় অসহায়, দরিদ্র ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পরিবারটি উর্দ্ধতন পুলিশ প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।