ফলোআপ : হজ্ব ফেরত স্বামীর উপস্থিতিতে খুলনার এমপি’র পুত্রবধূর লাশ দাফন


378 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ফলোআপ : হজ্ব ফেরত স্বামীর উপস্থিতিতে খুলনার এমপি’র পুত্রবধূর লাশ দাফন
অক্টোবর ৯, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ওয়াহেদ-উজ-জামান, খুলনা :
খুলনায় নিজের  বাবার বাড়ীতে বেডরুমে দেবরের শটগানের গুলিতে নিহত আওয়ামীলীগ দলীয় সাবেক সাংসদ মোল্লা জালাল উদ্দিনের পুত্রবধূ সোনিয়া রাব্বি সুলতানা লিপি (৩৫)’র দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

শুক্রবার বাদ আছর খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার মোল্লাডাঙ্গা গ্রামের একটি মাদ্রাসায় জানাযা শেষে লাশ দাফন করা হয়। এদিকে, ঘটনার দু’দিন পেরিয়ে গেলেও সন্দেহভাজন হত্যাকারী সাবেক এমপি’র ভাতিজাকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।

জানা গেছে, নিহত পুত্রবধুূ সোনিয়া রাব্বি সুলতানা লিপির স্বামী ও সাবেক এমপি মোল্লা জালাল উদ্দিনের বড় ছেলে কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী হেলাল ও তার মা হজ্ব পালন শেষে শুক্রবার সকালে ঢাকায় অবতরণ করেন। সেখান থেকে দুপুরের দিকে খুলনায় আসেন। এরপর খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে থাকা স্ত্রী’র লাশ গ্রহন করে নিজ গ্রাম দিঘলিয়া উপজেলার গাজীরহাট ইউনিয়নের মোল্লাডাঙ্গায় নেয়া হয়।
বাদ আছর স্থানীয় শাহানুর মাদ্রাসা ময়দানে জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে মাদ্রাসা গোরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়। জানাযায় সাবেক এমপি মোল্লা জালাল উদ্দিন ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দসহ এলাকার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, হত্যাকান্ডের ঘটনায় খুলনা সদর থানায় দায়েরকৃত মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনার দু’দিন পেরিয়ে গেলেও আসামি হেদায়েত হোসেন মোল্লাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে তাকে গ্রেফতারের জন্য দিঘলিয়া ও তেরখাদাসহ সম্ভাব্য স্থানগুলোতে অভিযান চালানো হয়েছে। কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি। তার অবস্থান জানা মাত্রই গ্রেফতার করা হবে।

বাদীর অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে এস.আই জহির বলেন, শটগান পরিস্কার করার সময় নাড়াচাড়া এবং রসিকতা করতে গিয়ে ঘটনাটি ঘটেছে- মর্মে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে আসামি গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযোগের সত্যতা এবং ঘটনার মূল বাস্তবতা এবং মোটিভ জানা যাচ্ছে না।

আসামি হেদায়েত হোসেন মোল্লাকে গ্রেফতার করে নিবিড়ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারলেই কেবল ঘটনার রহস্য বেরিয়ে আসবে বলেও আশা করছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ৭ অক্টোবর রাত সোয়া ৮ টারদিকে নগরীর মুন্সিপাড়া পুলিশ লাইন পূর্ব গলির ১৩নম্বর বাড়ির পঞ্চম তলায় নিজ কক্ষে চাচাতো দেবর হেদায়েত মোল্লার শটগানের গুলিতে নিহত হন খুলনা-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতা মোল্লা জালাল উদ্দিনের পুত্রবধূ সোনিয়া রাব্বি সুলতানা লিপি (৩৫)।

পরিবারের পক্ষ থেকে রসিকতার ছলে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে দাবি করা হয়। তবে এ ঘটনার পরদিন ৮ অক্টোবর মোল্লা জালাল উদ্দিন নিজেই বাদি হয়ে তার ভাতিজা হেদায়েতকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। নিহত গৃহবধূ সোনিয়া রাব্বি সুলতানা লিপি বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার বেতাগা ইউনিয়েনের মাশকাটা গ্রামের মৃত. সাঈদুর রহমানের মেয়ে।