ফেসবুক-ইউটিউবকে হটিয়ে শীর্ষে যে অ্যাপ


328 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ফেসবুক-ইউটিউবকে হটিয়ে শীর্ষে যে অ্যাপ
মে ১৮, ২০১৮ ফটো গ্যালারি বিনোদন
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
ফেসবুক, ইউটিউব ও হোয়াটসঅ্যাপের মতো জনপ্রিয় অ্যাপগুলোকে পিছনে ফেলে ব্যবহারকারীদের পছন্দের শীর্ষে ওঠে এসেছে চীনের ভিডিও সেলফি ব্যবহারের অ্যাপ ‌‘টিক টোক’।

যুক্তরাষ্ট্রের টেক গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্সর টাওয়ার জানিয়েছে, ২০১৮ সালের প্রথম তিনমাসে আইফোনে সবচেয়ে বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এই অ্যাপটি। এখন পর্যন্ত বিশ্বে ৪ কোটি ৪৮ লাখ বার নামানো হয়েছে অ্যাপটি। খবর বিবিসি বাংলার।

‘টিক টোক’ অ্যাপটি তৈরি করেছে বাইটড্যান্স নামের একটি প্রতিষ্ঠান, যার প্রতিষ্ঠাতা ৩৪ বছরের উদ্যোক্তা যাহাঙ ইয়িমিং।

এই অ্যাপের মূল ধারণা প্রকাশ করা হয় ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে। সেটি ছিল খুব সহজ, ব্যবহারকারীরা ১৫ সেকেন্ডের ছোট ছোট সংগীত সংবলিত ভিডিও তৈরি করতে পারবেন, যেখানে বেশ কিছু ইফেক্ট যোগ করা যাবে। ধারণাটি নতুন কিছু নয়, কিন্তু টিক টোক যেন সেটার সঠিক ব্যবহারই করেছে।

গবেষণা প্রতিষ্ঠান জিগুয়াঙ বলছে, চীনে মোট ব্যবহৃত স্মার্টফোনগুলোর অন্তত ১৪ শতাংশ ফোনে এই অ্যাপটি ব্যবহৃত হচ্ছে।

তবে এটি আইফোনে যত ভালোভাবে কাজ করে, অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলোয় ততোটা ভালো কাজ পাওয়া যায় না। এর কারণ হতে পারে যে, মেইনল্যান্ড চীনে গুগলের ডিস্ট্রিবিউশন প্লাটফর্মগুলো কাজ করে না, কারণ চীনে গুগলের সেবাগুলো নিষিদ্ধ রয়েছে।

তবে টিক টোকের লক্ষ্য শুধু চীনে নয়। প্রতিবেশী আরো কয়েকটি দেশে অ্যাপটি ছড়িয়ে পড়ছে, যার মধ্যে রয়েছে জাপানও।

চীনের ২৪ বছরের নীচের ব্যবহারকারীদের বেশিরভাগই এখন এই অ্যাপটি ব্যবহার করে। পাশাপাশি দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর তরুণদের কাছেও জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে টিক টোক। সেখানে ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়সীদের অন্তত এক তৃতীয়াংশ তরুণ অ্যাপটি ব্যবহার করে।