বগুড়া-৬ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রতীক পেয়েই প্রচার শুরু প্রার্থীদের


108 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
বগুড়া-৬ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রতীক পেয়েই প্রচার শুরু প্রার্থীদের
জুন ৪, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপ-নির্বাচনে গত ২৭ মে প্রার্থীতা চূড়ান্ত হওয়ার পরেও শুধু প্রতীক বরাদ্দ না পাওয়ার কারণে প্রতিদ্বন্দ্বী ৭ প্রার্থীর কেউই প্রকাশ্য প্রচারে নামতে পারছিলেন না। মঙ্গলবার ঈদের ছুটির মধ্যেই নির্বাচনী প্রচারের সবচেয়ে মোক্ষম উপকরণ প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন তারা। প্রতীক পেয়ে যথারীতি মাঠেও নেমে পড়েছেন তারা।

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী সাত প্রার্থীর মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী টি জামান নিকেতা যথারীতি নৌকা, বিএনপির গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ ধানের শীষ, জাতীয় পার্টি মনোনীত নুরুল ইসলাম ওমর লাঙ্গল, বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী মনসুর রহমান ডাব, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের রফিকুল ইসলাম হারিকেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ কবির আহম্মেদ মিঠু ট্রাক ও মো. মিনহাজ আপেল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন।

নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুব আলম শাহ্ মঙ্গলবার সকালে তার দফতরে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেন।

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বগুড়া-৬ (সদর) আসনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিজয়ী হন। তবে নির্ধারিত সময়ে শপথ না নেওয়ায় গত ৩০ এপ্রিল আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। এরপর গত ৮ মে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়।

মঙ্গলবার প্রতীক বরাদ্দের পর আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী টি জামান নিকেতার পক্ষে দুপুর ১২টার দিকে শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথায় সিএনজি চালিত অটোরিকশা থেকে নৌকার ভোট চেয়ে মাইকিং শুরু হয়। অপরদিকে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী জিএম সিরাজের পক্ষের সমর্থকরা সকালে শহরের খান্দারে নির্বাচন কার্যালয়ের সামনে লিফলেট বিতরণের মধ্য দিয়ে প্রচার শুরু করেন। পরে একটি মিছিলও বের করা হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে অন্য পাঁচ প্রার্থীর প্রচার চোখে পড়েনি।

ঈদের ঠিক আগ মুহূর্তে নির্বাচনী এই প্রচার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের জন্য খুবই কার্যকরী হিসেবে উল্লেখ করেছেন বগুড়ায় নির্বাচন পর্যবেক্ষণের সঙ্গে সম্পৃক্ত সুশাসনের জন্য প্রচারাভিযানের (সুপ্র) বগুড়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কেজিএম ফারুক।

তিনি বলেন, ঈদের ছুটি শুরু হয়েছে। সাধারণ মানুষের মধ্যে এমনিতেই এক ধরনের উৎসবের আমেজ কাজ করছে। এরই মধ্যে নির্বাচনী প্রচার শুরু হওয়ায় প্রার্থীরা উৎসবের আমেজে থাকা মানুষের কাছে খুব সহজেই পৌঁছাতে পারবেন। তাছাড়া ঈদের দিন ভোটারদের সঙ্গে এক সঙ্গে নামাজ আদায়ের পাশাপাশি ভোটের আগ পর্যন্ত ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে নিজেদের জন্য ভোট চাওয়ার সুযোগ পাবেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী টি জামান নিকেতা বলেন, নির্বাচনী প্রচারের ক্ষেত্রে দলীয় প্রতীক একটা বড় অনুষঙ্গ। সেটি আমরা পেয়েছি। খুব ভাল লাগছে। আমার দলের নেতাকর্মীরা ঈদের আমেজে প্রচার শুরু করে দিয়েছেন।

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ বলেন, ঈদের আগ মুহূর্তে প্রতীক বরাদ্দ পেয়ে সত্যিই খুব ভাল লাগছে।