বরিশালের সেই বিচারককে প্রত্যাহারের সুপারিশ


323 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
বরিশালের সেই বিচারককে প্রত্যাহারের সুপারিশ
জুলাই ২৫, ২০১৭ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
বরিশালের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের বিচারক আলী হোসেনকে প্রত্যাহারের জন্য সুপ্রিম কোর্টে সুপারিশ পাঠিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার (প্রশাসন ও বিচার) মো. সাব্বিজ ফয়েজ সমকালকে একথা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আইন মন্ত্রণালয়ের ওই সুপারিশের চিঠি মঙ্গলবার তাদের হাতে পৌঁছেছে।

বরগুনা সদর উপজেলো নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী তারিক সালমনকে হেনস্তার ঘটনায় সোমবার বরিশালের জেলা প্রশাসক গাজী মো. সাইফুজ্জামান ও বরগুনার জেলা প্রশাসক বশিরুল আলমকে প্রত্যাহার করা হয়।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, ইউএনও গাজী তারিক সালমনকে হেনস্তার ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ওই দুই জেলা প্রশাসককে প্রত্যাহার করা হয়েছে। পাবনা জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোখলেছুর রহমানকে বরগুনায় এবং সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব হাবিবুর রহমানকে বরিশালে জেলা প্রশাসক করা হয়েছে।

এর আগে সোমবার ইউএনও গাজী তারিক সালমনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মানহানি মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় আইনের কোনো ব্যত্যয় হয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্রে বঙ্গবন্ধুর ছবি ‘বিকৃত’ করে ছাপানোর অভিযোগে গত ৭ জুন আগৈলঝাড়ার সাবেক ইউএনও তারিক সালমনের বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট ওবায়েদুল্লাহ সাজু। বরিশাল সিএমএম আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে সমন জারি করে ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে আসামিকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন।

এরপর গত বুধবার দুপুরে ওই মামলায় বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম আলী হোসেনের আদালতে জামিন আবেদন করেন ইউএনও তারিক সালমন। আদালত প্রথমে তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিলেও পরে জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।

এই ঘটনার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শুরু হয় ব্যাপক সমালোচনা। বিষয়টি নজরে আসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের। সমালোচনার মুখে গত শুক্রবার ইউএনও গাজী তারিক সালমনের বিরুদ্ধে মামলার বাদী ওবায়েদুল্লাহ সাজুকে দলকে সাময়িক বহিষ্কার করে আওয়ামী লীগ। এরপর গত রোববার ইউএনও তারিক সালমনের বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহার করে নেন ওবায়েদুল্লাহ সাজু। ওই সময় তিনি বলেন, ‘ভুল বোঝাবুঝি থেকে মামলাটি করেছিলাম’।