বিনা ধান-১৪-১০ ও বিনা সরিষা চাষ করে কলারোয়ার কৃষকরা অধিক লাভবান


644 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
বিনা ধান-১৪-১০  ও বিনা সরিষা চাষ করে কলারোয়ার কৃষকরা অধিক লাভবান
মে ৪, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আব্দুর রহিম :

বাংলাদেশ পরমানু কৃষি গবেষণা ইনষ্টিটিউট, বিনেরপোতা, সাতক্ষীরার আয়োজনে জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাষ্ট ফান্ডের অর্থায়নে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, সাতক্ষীরার সহযোগিতায় বিনা ধান-১৪ এর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার দুপুরে কলারোয়া উপজেলার রামকৃষ্ণপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ  মাঠ দিবস অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সাতক্ষীরার উপ পরিচালক কাজী আব্দুল মান্নান।
বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনষ্টিটিউটের (বিনা) সাতক্ষীরার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আল আরাফাত তপুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ জি.এম.এ গফুর, কলারোয়া উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ মহাসীন আলী, সহকারী বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মোঃ আলমগীর কবির, কাজী এনায়েত হোসেন, উপ সহকারী কৃষি অফিসার মাহফুজুল কবির, কৃষক ইউনুস আলী প্রমুখ।
মাঠ দিবেস প্রধান অতিথি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সাতক্ষীরার উপ পরিচালক কাজী আব্দুল মান্নান তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ পরমানু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কৃষকদের কল্যাণে চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছে। বিভিন্ন জাঁত উদ্ধাবন করে কৃষকদের দৌড় গোড়ায় পৌছে দিয়েছে। সাতক্ষীরা জেলায় বিনা ধান ৭, বিনা সরিষা ১০ ও বিনা ধান ১৪ চাষ করে কৃষকরা অধিক লাভবান হয়েছে। কৃষকরাই দেশ গড়ার প্রকৃত সৈনিক। কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে। বর্তমান সরকার কৃষকদের কল্যানে নানমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। সরকারের উদ্যোগকে সফল করার জন্য বাংলাদেশ পরমানু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তারা কৃষকের মুখে হাঁসি ফুটানোর জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সহকারী বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আলমগীর কবির। এ মাঠ দিবসে ২শতাধিক কৃষক-কৃষাণি উপস্থিত ছিলেন।