বাগেরহাটে বসতঘরে অগ্নি সংযোগ


385 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
বাগেরহাটে বসতঘরে অগ্নি সংযোগ
আগস্ট ৬, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস.এম.সাইফুলইসলাম কবির,বাগেরহাট :
বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে বিবাদমান জমি থেকে প্রতিপক্ষকে উচ্ছেদ করতে বসতঘরে অগ্নি সংযোগের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে গোয়ালবাড়িয়া গ্রামের মহারাজ হাওলাদার এর ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয় তার শত্রু পক্ষের লোকেরা। এতে নগদ দেড় লাখ টাকাসহ আড়াই লাখ টাকার মালামাল পুড়ে ছাই হয়েছে। পুলিশ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম এ বিষয়ে প্রাপ্ত অভিযোগের বরাত দিয়ে জানান, প্রতিবেশী শত্রুপক্ষের লোকেরা গভীর রাতে পেট্রোল দিয়ে মহারাজ হাওলাদারের বসতঘরে অগ্নি সংযোগ করে। এ ঘটনায় একই গ্রামের গোলাম ফারুক হাওলাদারের ছেলে শাওন(৩৭) ও শোভন(৩০)সহ ৭জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন মহারাজ।
জানা গেছে, প্রায় ১ বিঘা জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মহারাজ ও শাওনদের সাথে মামলা চলে আসছে। ৫/৬মাস পূর্বে মহারাজ ওই জমিতে একটি ঘর তুলে সেখানে বসবাস শুরু করেছিলেন।
##

বাগেরহাটে মুক্তিযোদ্ধা কল্যান অফিস ভাংচুর ঘটনায় মামলা
বাগেরহাট প্রতিনিধি :
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ‘মুক্তিযোদ্ধা কল্যান অফিস’ ভাংচুরের অভিযোগে বৃহস্পতিবার থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
নিশানবাড়িয়া ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. আয়নাল খান বাদিহয়ে মামলাটি করেছেন। তিনি জানান, সুন্দরবন সংলগ্ন ভোলানদীর চর ভরাটি খাস সম্পত্তি ডিসিআরমূলে ভোগ দখল করছেন মুক্তিযোদ্ধারা। সেখানে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধারা ‘মুক্তিযোদ্ধা কল্যান অফিস’ ঘর নির্মান করেছেন। স্থানীয় একটি চক্র ওই জমিতে দখল নিতে সোমবার বিকেলে মুক্তিযোদ্ধাদের ওই অফিস ঘরটি ২য় বারের মত ভাংচুর করে। এ ঘটনায় পিসি বারইখালী গ্রামের আশ্বাব আলী ফরাজীর ছেলে পান্না ও রুহুল আমীনসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে আজ মামলা দায়ের হয়েছে। এ বিষয়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. লিয়াকত আলী খান বলেন, থানা পুলিশের বিতর্কীত ভূমিকার কারনে পেশাদার অপরাধীরা আমাদের অফিস ভাংচুরের সাহস করেছে।
থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।