বাবার মৃত্যুশোকে স্ট্যাটাস দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের আত্মহত্যা


207 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
বাবার মৃত্যুশোকে স্ট্যাটাস দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের আত্মহত্যা
নভেম্বর ১২, ২০২০ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

বাবার মৃত্যুশোক সইতে না পেরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক ছেলে। বুধবার রাতে নেত্রকোনার র্পূবধলা উপজেলার বিশকাকুনী ইউনিয়নের ধোবারুহী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই ছেলের নাম শেখ রাসেল (২৩)। তিনি ওই গ্রামের হাফেজ মাওলানা আবদুল বারীর ছেলে এবং ময়মনসিংহ আনন্দমোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র।

এলাকাবাসী জানায়, পূর্বধলার ধোবারুহী গ্রামের স্থানীয় এক মাদ্রাসা শিক্ষক আবদুল বারী বুধবার রাত ৮টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। বাবার মৃত্যুশোক সহ্য করতে না পেরে ছেলে শেখ রাসেল মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে ঘরের আড়ায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।

মৃত্যুর আগে শেখ রাসেল ফেসবুকে স্ট্যাস্টাস দেন। এতে তিনি লেখেন, ‘আমার দুনিয়ায়, আমার আখেরাত আমার আব্বা! ডা. মাত্র আব্বারে মৃত ঘোষণা করলো! দোয়া চাই, অবশ্যই আব্বাকে একা ছাড়বো নাহ.. আমিও সঙ্গী হবো, ইনশাআল্লাহ। আমার দুনিয়া, আমার আব্বা আমার সব, আমার কলিজা। আমার অক্সিজেন ফুরিয়ে গেল, আমার দেহ থেকে কলিজা বিচ্ছিন্ন হলো! বাবা আমাদের জন্য আমৃত্যু সংগ্রাম করে গেলেন। প্রতিদান দিলাম, দুশ্চিন্তা, ক্রোধ, আর নানা বাজে কাজ! আব্বা তুমি আমার সুপার হিরো! আমার বেঁচে থাকার সম্বল তুমি নাই আমি কি করে থাকবো বলো? ১০টা বেজে গেল, কই তোমার ফোন তো আসলো না! কই আমার খোঁজ তো কেউ নিলো না!’

পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আবেদনের প্রেক্ষিতে ওই শিক্ষার্থীর লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।