বিএমএসএফ’র নেতা আজাদের ওপর হামলার নিন্দা সাতক্ষীরা জেলা সাংবাদিক ফোরামের


139 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
বিএমএসএফ’র নেতা আজাদের ওপর  হামলার নিন্দা সাতক্ষীরা জেলা সাংবাদিক ফোরামের
মে ১৫, ২০১৯ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

শেখ আমিনুর হোসেন ::

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ)’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও অনলাইন সম্পাদক পরিষদের আহবায়ক আবুল কালাম আজাদের ওপর সন্ত্রাসি হামলার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর উত্তর বাড্ডার সাতারকুল এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় সাংবাদিকরা তাকে উদ্বার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় বিকেলে বাড্ডা থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এদিকে সাংবাদিক নেতার ওপর অতর্কিত হামলায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে সাতক্ষীরা জেলা সাংবাদিক ফোরাম (রেজিঃ নং ৫৮৩/০৪) এর নেতৃবৃন্দ। সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতিতে উল্লেখ করেছেন যে সাংবাদিকেরা আজ আর কোথাও নিরাপদ নয়। নিজের স্বার্থে যে কেউ সাংবাদিকের গায়ে হাত তুলতে দ্বিধাবোধ করছেন না। সাংবাদিকেরা যেন ফুটবল। যেমন খুশি খেলতে পারছেন! এই অবস্থা থেকে সাংবাদিকদের বেরিয়ে আসতে হবে। সাংবাদিক সমাজকে মুক্তি দিতে হবে। সাংবাদিক নির্যাতন বন্ধে যুগোপযোগি আইন প্রণয়ন করতে হবে। সন্ত্রাসী ও তার সহযোগিদের গ্রেফতার করা না হলে সংগঠনের পক্ষ থেকে কঠোর কর্মসূচী গ্রহনেরও হুশিয়ারী দেয়া হয়। বিবৃতিদাতারা হলেন, সাতক্ষীরা জেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম (দৈনিক প্রবাহ), প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারন সম্পাদক শেখ আমিনুর হোসেন (দৈনিক তৃতীয় মাত্রা ও দৈনিক পত্রদূত), সিনিয়র সহ-সভাপতি মোশাররফ হোসেন আব্বাস (সাপ্তাহিক দখিনার দূত), সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্বা কাজী নাছির উদ্দীন (দৈনিক আমার সংবাদ), যুগ্ন-সম্পাদক শেখ বেলাল হোসেন (দৈনিক গণজাগরণ ও দৈনিক পত্রদূত), সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জিয়াউর রহমান জিয়া (দৈনিক বঙ্গজননী), অর্থ সম্পাদক মোতাহার নেওয়াজ মিনাল (দৈনিক কাফেলা), ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাহফিজুল ইসলাম আক্কাজ (দৈনিক আজকের সাতক্ষীরা), কার্য্য নির্বাহী সদস্য মোঃআবুল কালাম (সাপ্তাহিক মুক্তস্বাধীন), আনিছুর রহমান তাজু (দৈনিক যুগের বার্তা), আরীফ মাহমুদ (দৈনিক যায়যায়দিন, দৈনিক পত্রদূত), মোঃ আব্দুল মতিন (দৈনিক যায়যায়দিন, দৈনিক দেশ সংযোগ) মোঃ হেলাল উদ্দীন (ক্রাইম প্রতিদিন, সিপি টিভি), কাজী ফখরুল ইসলাম রিপন (দৈনিক সোনালীবার্তা) ও এ এইচ এম তুমু (দৈনিক তৃতীয় মাত্রা) প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।
উল্লেখ্য, আহত সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ মঙ্গলবার দুপুর ৩টায় ঢাকা মেডিকেলে সাংবাদিকদের কাছে জানিয়েছেন, তার বাসার গ্যারেজে বহিরাগত গাড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে হামলা চালিয়ে সিসি ক্যামেরা ভাংচুর করে শারিরীক লাঞ্ছিত করে।
হত্যা, মাদকসহ বিভিন্ন মামলার চিহ্নিত সন্ত্রাসি তার সহযোগিরা এ হামলা চালায়। এতে আজাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ফুলা জখম হয়েছে।
আজাদ এ সময় নিজেকে একজন সাংবাদিক পরিচয় দিলেও সন্ত্রাসী অনিক গোটা সাংবাদিক জাতিকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে। এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে আজাদের বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতির হুমকি দেয়। সংগঠনের পক্ষ থেকে অবিলম্বে হামলাকারী সন্ত্রাসী ও তার সহযোগিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি করা হয়েছে।