বিতর্কের মুখে ওয়েবসাইট সরিয়ে নিলেন মেলানিয়া ট্রাম্প


285 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
বিতর্কের মুখে ওয়েবসাইট সরিয়ে নিলেন মেলানিয়া ট্রাম্প
জুলাই ৩০, ২০১৬ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক :
নিজের ওয়েবসাইট সরিয়ে নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প। শিক্ষাগত যোগ্যতার তথ্য নিয়েই মূলত বির্তকের শুরু। ওয়েবসাইটটিতে উল্লেখ করা হয়েছে তিনি স্লোভেনিয়া থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। এক পত্রিকার প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, সাবেক মডেল মেলানিয়া স্কুলের গণ্ডিই পার করতে পারেননি।

সিএনএন জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার এক টুইটার পোস্টে নিজের ওয়েবসাইট সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর মেলানিয়ার ওয়েবসাইট www.melaniatrump.com  এর ‌‘ভিজিটরদের’ ট্রাম্পের ওয়েবসাইট www.trump.com  এ ঘুরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া মেলানিয়ার ওয়েবসাইটে দেওয়া শিক্ষাগত যোগ্যতার তথ্যের সঙ্গে সম্ভাব্য এই ‘ফ্রাস্ট লেডি’র একটি জীবনীতে শিক্ষাগত যোগ্যতার তথ্যের গরমিল নিয়ে হাফিংটন পোস্ট প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশের পর বিষয়টি সামনে আসে।

এদিকে, এক টুইট বার্তায় মেলানিয়া বলেন, “ওয়েবসাইটটি ২০১২ সালে তৈরি করা হয়েছিল এবং এখন সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে, কারণ এটি আমার বর্তমান ব্যবসায়িক ও পেশাগত আগ্রহকে যথাযথভাবে প্রতিফলিত করে না।”

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্ত্রী মিশেল ওবামার ভাষণ থেকে বক্তব্য ‘মেরে দেওয়ার’ অভিযোগের মুখে পড়েছিলেন ট্রাম্পের স্ত্রী মেলানিয়া।

জীবনীভিত্তিক বই ‘মেলানিয়া ট্রাম্প: দ্য ইনসাইড স্টোরি’তে মেলানিয়া বলেছিলেন, মডেলিং শুরুর এক বছরের মধ্যে তিনি স্কুল ছেড়ে দেন। কেননা তিনি তার দ্রুত বিকশিত হতে থাকা ক্যারিয়ারের দিকে আরও মনোযোগী হতে চেয়েছিলেন।