ব্যবসায়ীকে মারধর : দুই সহযোগীসহ মহাদেবপুর ছাত্রলীগের সভাপতি গ্রেপ্তার


146 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ব্যবসায়ীকে মারধর : দুই সহযোগীসহ মহাদেবপুর ছাত্রলীগের সভাপতি গ্রেপ্তার
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

নওগাঁর মহাদেবপুরে এক ব্যবসায়ীকে মারধর ও চাঁদাবাজির অভিযোগে করা মামলায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাজু আহমেদকে দুই সহযোগীসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জেলা পুলিশের একটি বিশেষ টিম মঙ্গলবার ঢাকার একটি এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে বলে জানিয়েছেন নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাকিবুল আক্তার।

বুধবার সকালে তিনি সমকালকে জানান, গ্রেপ্তার তিনজনকে বর্তমানে নওগাঁ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে রেখে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তবে তদন্তের স্বার্থে রাজুর দুই সহযোগীর পরিচয় জানাননি ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, পুলিশের একটি বিশেষ টিম ঢাকা থেকে রাজুসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে নওগাঁয় নিয়ে এসেছে। বর্তমানে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

শোরুমে ঢুকে মারধর ও চাঁদাবাজীর অভিযোগ গত ৭ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগ নেতা রাজু আহমেদ ও নয়নসহ অজ্ঞাত আরও ৬-৭ জনের বিরুদ্ধে মহাদেবপুর থানায় মামলা করেন সোহেল রানা। মামলার অভিযোগে বলা হয়, রাজু ও তার সহযোগীরা গত ৫ সেপ্টেম্বর নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলা সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সোহেল রানার আরএফএল ভিগো শোরুমে ঢুকে চাঁদা দাবি ও তাকে মারধর করে।

ব্যবসায়ী সোহেলকে মারধরের দৃশ্য তার শোরুমের সিসি ক্যামেরায় রেকর্ড হয়, যা পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনার পর থেকে রাজু তার সহযোগীরা পলাতক ছিলেন।

এ ঘটনায় কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব না দেওয়ায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর রাজু আহমেদকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করে জেলা ছাত্রলীগ। রাজু উপজেলার এনায়েতপুর ইউনিয়নের চকহরিবল্লভ আবাসন গুচ্ছ গ্রামের জিল্লুর রহমানের ছেলে বলে জানা গেছে।