ব্রহ্মরাজপুরে পুত্রের দোকান ঘরে পিতার আগুন !


1520 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ব্রহ্মরাজপুরে পুত্রের দোকান ঘরে পিতার আগুন !
ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

ধুলিহর প্রতিনিধি :
দোকান ও বসত ঘরে নিজে আগুন দিয়ে ছেলেকে ফাঁসাতে গিয়ে গ্রামবাসীর হাতে ধরা খাওয়ার আগেই পালিয়ে গেলেন পিতা। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের দহাকুলা পূর্ব পাড়া গ্রামে। জানা যায়, দহাকুলা পূর্ব পাড়া গ্রামের মোঃ ওয়াজেদ আলীর পুত্র রেজাউল ইসলাম গত ৮ মাস পূর্বে তার স্ত্রীকে ভয় দেখিয়ে তিন শতক জমি লিখে নেয়। উক্ত জমিতে বসত ঘর ও মুদি দোকান রয়েছে। এই জমি নিয়ে বিরোধ হলে স্ত্রী আনোয়ারা খাতুন থানায় সম্প্রতি অভিযোগ দিলে জমিটি পুত্র লিটন হোসেন ও কন্যার নামে লিখে দেবে বলে দুইশত পঞ্চাশ টাকার ষ্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা ও না দাবী পত্র দেয় রেজাউল ইসলাম। এরপর থেকেই লিটন দোকান ও বসত ঘর ভোগ দখল করে আসছিল। জমিটি তাদের নামে লিখে দেবে না বলে বেশ কিছুদিন সে পুত্রকে ভিটে-বাড়ি থেকে তাড়ানোর চেষ্টা চালাতে থাকে। এরই জের ধরে সোমবার রাত এগারটার দিকে রেজাউল কৌশলে পুত্রের দোকান ও বসত ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় গ্রামবাসী টের পেয়ে তাকে ধাওয়া করলে সে পালিয়ে যায়। এরই মধ্যে দোকানের মালামাল ও বসত ঘরের জিনিসপত্র ভষ্মীভূত হয়ে যায়। এতে প্রায় অর্ধ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। গ্রামবাসীরা পুলিশের সামনে সত্য ঘটনা তুলে ধরে রেজাউলের বিচার দাবী করে। পুলিশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় লিটন বাদী হয়ে তার পিতাকে আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।