ব্রাজিলকে চ্যাম্পিয়ন বানাতে রেফারির দুর্নীতি : মেসি


54 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ব্রাজিলকে চ্যাম্পিয়ন বানাতে রেফারির দুর্নীতি : মেসি
জুলাই ৮, ২০১৯ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

লাল কার্ডের সঙ্গে লিওনেল মেসির সাক্ষাৎ খুব একটা হয়নি। ২০০৫ সালে হাঙ্গেরির বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টিনার হয়ে প্রথম লাল কার্ড দেখেছিলেন মেসি। এরপর গত শনিবার রাতে চিলির বিপক্ষে দেখলেন দ্বিতীয়টি। তবে এবারের লাল কার্ড তার প্রাপ্য ছিল না বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

ব্রাজিলকে শিরোপা জেতাতে কোপা আমেরিকার ৪৬তম আসরে এমন দুর্নীতি হচ্ছে বললেন মেসি, ‘কোনো সন্দেহ নেই সব কিছু ব্রাজিলের পক্ষে আছে। ব্রাজিলকে শিরোপা জেতাতেই এ দুর্নীতি। তার পরও আমার বিশ্বাস, ফাইনালে রেফারি ও ভিএআর কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে না। পেরু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা সুযোগ পাবে। যদিও এমন হওয়াটা কঠিন হবে বলে মনে হচ্ছে। আমরা আরও সামনে যেতে পারতাম। কিন্তু আমাদের ফাইনালে যেতে দেওয়া হয়নি। আসলে দুর্নীতি ও রেফারি দর্শকদের সুন্দর ফুটবল উপভোগের পথে বড় বাধা। আমাদের দু’জনের জন্য হলুদ কাডই যথেষ্ট হতো। তা ছাড়া আমি লাল কার্ড পাওয়া যোগ্যও ছিলাম না। তবে সেমির পর যা বলেছি মনে হয় সেটি এর ফল।’

চিলিকে হারিয়ে তৃতীয় হওয়ার পর মেডেল নিতেও যাননি মেসি। অভিমান করে দলের ফটোসেশন থেকেও নিজেকে আড়াল করে রাখেন। তবে লাতিন আমেরিকান ফুটবল কর্তৃপক্ষ নিয়ে এমন সমালোচনা করায় হয়তো নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়তে পারেন মেসি। এক বিবৃতিতে তারা মেসির অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে। অবশ্য মেসি এসবের তোয়াক্কা করছেন না, ‘তারা (কনমেবল) যা খুশি করতে পারে। আমি সত্য বলেই যাব।’

এদিকে চিলির বার্সা তারকা আর্তুরো ভিদালও রেফারিকে কাঠগড়ায় তুলেছেন। ম্যাচের পর তিনি বলেন, ‘ম্যাচের হিরো হতে চেয়েছিলেন রেফারি। আসলে মেসি আর মেডেলের মধ্যে যা হয়েছে সেটার শাস্তি লাল কার্ড হতে পারে না।’