ব্র্যাক ব্যাংকে মোটরযান রেজিস্ট্রেশনের টাকা জমা নিয়ে প্রতারণার দায়ে দুই দালালকে সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত


348 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ব্র্যাক ব্যাংকে মোটরযান রেজিস্ট্রেশনের টাকা জমা নিয়ে প্রতারণার দায়ে দুই দালালকে সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত
আগস্ট ২৬, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার ॥
ব্র্যাক ব্যাংক, সাতক্ষীরা শাখায় মটর সাইকেলের রেজিষ্ট্রেশনের টাকা জমা দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে দুই দালালকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরে তাদের প্রত্যেককে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

বুধবার দুপুর ১২ টায় ব্র্যাক ব্যাংক সাতক্ষীরা শাখায় সাতক্ষীরার সহকারী কমিশনার বিষ্ণুপদ পাল ও সহকারী কমিশনার আবু সাঈদের যৌথ অভিযানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, জেলা শহরের পুরাতন সাতক্ষীরা এলাকার সেকেন্দার আলীর ছেলে খলিলুর রহমান ও সুলতানপুর ঝিলপাড়া এলাকার আনোয়ার আলীর ছেলে হযরত আলী।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক আবু সাঈদ ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে তাদের সাজার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) সাতক্ষীরা অফিসে মোটরসাইকেলের রেজিস্ট্রেশন চলছে। রেজিস্ট্রেশনের জন্য সাতক্ষীরায় একমাত্র ব্র্যাক ব্যাংকে টাকা জমা নেয়া হচ্ছে। মোটরসাইকেল চালকরা ব্র্যাক ব্যাংকে রেজিষ্ট্রেশনের টাকা জমা দিতে এসে বিভিন্ন দালাল ও কতিপয় ব্যাংক কর্মকর্তার হয়রাণীর শিকার হচ্ছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার দুপুরে এই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারকদ্বয় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সরেজমিন গিয়ে খলিলুর রহমান ও   হযরত আলীকে আটক করে এবং তদের প্রত্যেককে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

টাকা জমা দিতে আসা গ্রাহকরা জানায়, ভোর রাত ৪ টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত লাইনে দাঁড়িয়ে তাদেরকে টাকা জমা দিতে হচ্ছে। একমাত্র ব্র্যাক ব্যাংক ছাড়া অন্য কোন ব্যাংকে এই টাকা জমা নেয়া হয় না। এ কারণে প্রতিদিন শত শত মানুষ টাকা জমা তিদে না পেরে ফিরে যাচ্ছে। এই সুযোগে এক শ্রেণীর দালাল ব্যাংকের কতিপয় কর্মকর্তার সাথে যোগসাজশে মোটসাইকেল চালকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকার বিনিময়ে গোপনে টাকা জমা দেয়ার আয়োজন করে দিচ্ছে। ফলে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়েও অনেকে টাকা জমা দিতে পারছে না। বেশ কিছু দিন ধরে চলছে এ ধরণের প্রতারণা।

অভিযোগ রয়েছে, ব্র্যাক ব্যাংকের ভিতরে এসি রুমে বসে ম্যানেজার এস এম জহির উদ্দীন এসব দালাল চক্রকে নিয়ন্ত্রন করছেন। টাকা জমা করিয়ে দেয়ার নামে নিয়োগকৃত দালালদের মাধ্যমে ৫’শ থেকে ২৫’শ টাকা পর্যন্ত গাড়ির মালিকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে

এসব অভিযোগের সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের নজরে আসার পর বুধবার ভ্রাম্যমান আদালত ওই ব্যাংকে অভিযানে নামে।