ভারত গরু দিচ্ছে না বলে হতাশ হয়ে বসে থাকলে চলবে না : কলারোয়া সীমান্তে মেজর বকশী


584 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ভারত গরু দিচ্ছে না বলে হতাশ হয়ে বসে থাকলে চলবে না  : কলারোয়া সীমান্তে মেজর বকশী
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৫ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান, কলারোয়া :
সাতক্ষীরা-৩৮, বিজিবি’র ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর নজির আহম্মেদ বকশী বলেছেন, সীমান্তে বসবাসকারী দরিদ্র জনগোষ্ঠীর আত্ম কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া দরকার। গরুর ব্যবসার ওপর নির্ভরশীল পরিবারগুলোকে ভিন্ন কর্ম সংস্থানের ব্যবস্থা করা গেলে তাদের পরিবারে স্বচ্ছলতা বাড়বে। ভারত গরু দিচ্ছে না বলে হতাশ হয়ে বসে থাকলে চলবে না। নতুন কিছু সৃষ্টিতে যুব সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে। বাড়াতে হবে নতুন করে স্বাবলম্বিতা।

তিনি আরও বলেন, সীমান্তে অবৈধ পারাপার যে কোনো মূল্যে বন্ধ করতে হবে। কেউ যাতে অবৈধভাবে সীমান্ত পার হতে না পারে সেজন্য সকলকে সজাগ থাকতে হবে। অবৈধভাবে ভারতে যেয়ে কেউ গুলির মুখে পড়ে অকালে জীবন হারাবেন না। ভারত গরু দিলে তা আনা যাবে। তবে সীমানা পার হওয়া যাবে না। তিনি এই সীমান্তে অবৈধ পারাপারজনিত কোনো অনাকাঙ্খিত ঘটনা না ঘটায় জনপ্রতিনিধিসহ সকলের দায়িত্বশীল ভূমিকার প্রশংসা করেন।

সোমবার বিকেলে কলারোয়ার মাদরা বিওপি ক্যাম্প চত্বরে ৩৮, বিজিবি আয়োজিত স্থানীয় জনতা ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সভায় অংশগ্রহণ করেন ও বক্তব্য দেন সোনাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান এসএম শহিদুল ইসলাম, কেঁড়াগাছি ইউপি চেয়ারম্যান ভুট্টোলাল গাইন,সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন, মোশাররফ হোসেন, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সিদ্ধেশ্বর চক্রবর্তী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, সাবেক সভাপতি গোলাম রহমান, সংবাদিক মনিরুল ইসলাম মনি, আতাউর রহমান, এমএ সাজেদ, ইউপি সদস্য মনিরুল ইসলাম, ডা: রেজাউল করিম রেজা, মনিরুল ইসলাম, বদরুজ্জামান, মাদরা বিওপি’র সুবেদার আব্দুর রব, কাকডাঙ্গা বিওপি’র নায়েব সুবেদার হুমায়ুন কবীর, হিজলদি বিওপি’র নায়েব সুবেদার কামাল হোসেন, চান্দুড়িয়া বিওপি’র নায়েব সুবেদার বিল্লাল হোসেন প্রমুখ।