ভোটের মাঠ সমতল থাকবে : ইসি রফিকুল


342 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ভোটের মাঠ সমতল থাকবে : ইসি রফিকুল
নভেম্বর ১১, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেছেন, ভোটের মাঠ সমতল থাকবে। নির্বাচন কমিশন এনিয়ে যত কিছুই করুক না কেন একটি পক্ষ বলবেই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি হয়নি। প্রত্যেক যোগ্য ভোটারকে ভোটার লিস্টে অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে, যারা প্রার্থী হবার যোগ্য তাদের নির্বাচনে প্রার্থী হবার সুযোগ করে দিয়েছি। অনেকে অভিযোগ করেছে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দিতে বাধা দেয়া হবে। এ সমস্যা সমাধানে আমরা অনলাইনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার ব্যবস্থা করেছি।

রোববার বিকেলে রংপুর আরডিআরএস প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) ব্যবস্থাপনায় থেকে নিরবিচ্ছিন্নভাবে ভোট গ্রহণে কাজ করবে সেনাবাহিনী। ইভিএম কেন্দ্রগুলোতে মারামারি হবে এমন আশঙ্কায় সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হবে না। তারা সরাসরি ইভিএম নিয়ে কাজ করবে। কোনো ত্রুটি হলে সেগুলো দেখা, দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ার, সিগ্যনাল বিভাগের জনবল কাজ করবে।

নির্বাচন কমিশনার বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা খুব সীমিত আকারে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণের ব্যবস্থা করবো। উন্নত বিশ্বে কর্মসংস্থানের জন্য ইভিএমের পরিবর্তনে ব্যালট ব্যবহার করা হয়। তাদের কয়েক লাখ ভোটার। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপট ও তাদের দেশের প্রেক্ষাপট ভিন্ন। আমাদের দেশে ১০ কোটি ব্যালট পেপার ছাপাতে হয় মাত্র ১০ দিনে। সেটি প্রত্যেকটি ভোট কেন্দ্রে পৌঁছাতে হয়, কাজের চাপ আমাদের জন্য একটি অমানবিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। আমরা ছাপানো, কেন্দ্রে পৌঁছে দেয়া, পরিবহনে যেসব ঝামেলা হয় সেটি ওভারকাম করতে চেয়েছি। তাই একদিনের জন্য কোটি কোটি ব্যালট ছাপিয়ে কাগজের অপব্যবহার করতে চাই না। ইভিএম ব্যবহার করলে আমাদের নির্বাচন অনুষ্ঠানে ব্যয় কমে আসবে। প্রথমদিকে ইভিএম কেনার জন্য একটি বড় অংকের টাকা ব্যয় হচ্ছে, কিন্তু পরবর্তী নির্বাচনে এর ব্যয় একেবারেই কম হবে।

ইভিএমে ভোটারদের আস্থা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আস্থা তৈরি করতেই স্বল্প পরিসরে এর ব্যবহার শুরু হচ্ছে। ধাপে ধাপে আস্থা তৈরি হবে। ইভিএম বিশ্বাস করাতে ভারতের জনগণকে ১৫ বছর লেগেছে। আমরা খুব স্বল্প সময়ে ভোটারদের বোঝাতে পারবো এটি একটি স্বচ্ছ ভোটগ্রহণের প্রক্রিয়া।