‘ভোট হলে ইনু ইউপি মেম্বারও হতে পারবেন না’


373 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘ভোট হলে ইনু ইউপি মেম্বারও হতে পারবেন না’
জুলাই ৯, ২০১৫ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক :
বুধবার বিকালে চট্টগ্রাম নগরীর একটি কনভেনশন সেন্টারে দক্ষিণ জেলা বিএনপির এক আলোচনা সভায় বিএনপির এই কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান এ কথা বলেন।

নোমান বলেন, “তথ্যমন্ত্রীর সম্প্রতি দেওয়া বক্তব্যে ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। বিএনপি এবং খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়ে সরকারের আস্থা অর্জন করে মন্ত্রিত্ব রক্ষার চেষ্টা ‘বুমেরাং’ হয়ে যেতে পারে।”

গত ২৭ জুন এক অনুষ্ঠানে জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, ২০১৯ সালে পরবর্তী সাধারণ নির্বাচনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণের সুযোগ থাকবে না।

তিনি বলেন, “২০১৯ সালে একটি নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচনে গণতান্ত্রিক শক্তির সঙ্গে গণতান্ত্রিক শক্তির নির্বাচন হবে। এতে গণতন্ত্রের অচল মাল সচল হওয়ার কোনো সুযোগ নাই। আগুন সন্ত্রাসী খালেদা জিয়ার সেই নির্বাচনে অংশগ্রহণের কোনো ‍সুযোগ থাকবে না।”

এ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ইনুকে গণতন্ত্রের শত্রু আখ্যায়িত করে নোমান বলেন, “নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে ইনু জনগণের ভোটে ইউপি মেম্বারও হতে পারবেন না।”

“যারা দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক আর্দশকে জলাঞ্জলি দিয়ে মন্ত্রিত্ব রক্ষার জন্য সরকারের পদলেহন করে দেশনেত্রীকে নিয়ে অশালীন ভাষায় বক্তব্য দিচ্ছেন ইতিহাসে তারা খলনায়ক হিসেবে চিহ্নিত হবেন।”

বিএনপি এখন আগের চেয়ে অনেক শক্তিশালী দল বলেও দাবি করেন নোমান।

তিনি বলেন, “বিএনপি দুর্বল হয়ে গেছে বলে যারা প্রচার করছেন তাদের পায়ের নিচে মাটি নেই।”

সাবেক সংসদ সদস্য সরওয়ার জামাল নিজামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এ এম নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আহমদ খলিল খান, পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোজাফফর আহমদ চৌধুরী টিপু প্রমুখ।