ভোমরা বন্দর দিয়ে ২২শ’মেট্রিকটন ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি


125 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ভোমরা বন্দর দিয়ে ২২শ’মেট্রিকটন ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি
অক্টোবর ৬, ২০১৯ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান :
আমদানিকৃত ২ হাজার ২শ’ মেট্রিকটন ভারতীয় পেঁয়াজ অবশেষে প্রবেশ করেছে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে। শনিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উক্ত পেঁয়াজ ভোমরা বন্দরে প্রবেশ করে। গত এক সপ্তাহ আগে লোড করা এসব পেঁয়াজের ইতিমধ্যে ১০ থেকে ২০ ভাগ পচে গেছে। তবে, রবিবার ভোমরা বন্দরে পেঁয়াজের পাইকারী বিক্রয় মুল্য কেজি প্রতি ৫২ টাকা হওয়ায় ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এর আগে গত ৩০ সেপ্টেম্বর ভারত সরকার হঠাৎ পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। এর ফলে এলসি করা বিপুল সংখ্যক পেঁয়াজ ভারতের ঘোজাডাঙ্গায় আটকে থাকে। এরপর বাংলাদেশ ও ভারত উভয় দেশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের লিখিত অনুমতি সাপেক্ষে গত শনিবার অন্যান্য স্থলবন্দর বন্ধ থাকার পরও বিশেষ প্রক্রিয়ায় ১শ’ ৮ ট্রাক পেঁয়াজ আমদানি করা হয় ভোমরা বন্দরে। তবে, আমদানীকৃত এসব পেঁয়াজের ১০ থেকে ২০ ভাগ পচে নষ্ট হওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা।

ভোমরা স্থল বন্দরের ব্যবসায়ী মইনুল ইসলাম জানান, কেজি প্রতি ৭২ টাকা মূল্যে পেঁয়াজ আমদানি করে তা বিক্রি করতে হচ্ছে ৫২ টাকায়। কেজিতেই লোকসান গুনতে হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা। এতে রীতিমত হতাশ হয়ে পড়েছেন তারা।

এদিকে, বর্তমানে সাতক্ষীরার পাইকারি বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৬০ টাকা এবং দেশি পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৭৫ টাকা। খুচরা বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৬২-৬৫ টাকা এবং দেশী পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮৫-৯০ টাকা।

ভোমরা সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আরাফাত হোসেন জানান, উভয় দেশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের লিখিত অনুমতি সাপেক্ষে শনিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অপেক্ষামান পন্যবাহি পেঁয়াজের ট্রাক গুলো ভোমরা বন্দরে প্রবেশ করেছে। তবে, এসব পেঁয়াজের ইতিমধ্যে ১০ থেকে ২০ ভাগ পঁচে যাওয়ার হতাশ হয়ে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা।

#