ভোমরা স্থল বন্দরে আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম এখনও বন্ধ


313 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ভোমরা স্থল বন্দরে আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম এখনও বন্ধ
সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

 

আসাদুজ্জামান ::
সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দরের বিপরীতে ভারতের ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এজেন্ট এমপ্লয়ী কার্গো এ্যাসোসিয়েশনের অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি দ্বিতীয় দিনের ন্যায় অব্যাহত রয়েছে। যে কারনে আজ মঙ্গলবারও ভোমরা বন্দরের আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। সে দেশের সিএন্ডএফ এজেন্ট এমপ্লয়ী কার্গো ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কাষ্টমস এর পক্ষ থেকে একটি সাধারন ডায়েরী করার প্রতিবাদে তারা এই অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ডাক দেয়। এর ফলে উভয় পারে ৫ শতাধিক আমদানিপন্যবাহী ট্রাক আটকা পড়ে আছে।
ভোমরা স্থল বন্দর সিএন্ডএফ এ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি আবু মুসা জানান, ভারতের ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এজেন্ট এমপ্লয়ী কার্গো ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক মিহির ঘোষ স্বাক্ষরিত এক পত্রে জানানো হয়েছে ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এজেন্ট এমপ্লয়ী কার্গো এ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক ও যুগ্ম-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনে সে দেশের কাষ্টমস এর পক্ষ থেকে বসিরহাট থানায় গত ১৭ই আগষ্ট একটি সাধারন ডায়েরী করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে চলতি মাসের ৯ তারিখে ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এজেন্ট এমপ্লয়ী কার্গো ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের এক আলোচনা সভায় সর্বোসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় কাষ্টমসের এই মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সোমবার থেকে এ্যাসোসিয়েশনের সকল সদস্য অনির্দিষ্ট কালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছেন। এর ফলে সে দেশের এ্যাসোসিয়েশনের সকল সদস্য আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম বন্ধ রেখে কর্মবিরতি পালন করায় আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে। আর শ্রমিকদের কর্মবিরতির কারনে আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম বন্ধ থাকায় সরকার কোটি কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে।
সাতক্ষীরা চেম্বারের সহ-সভাপতি এনছান বাহার বুলবুল জানান, এরফলে ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। বিশেষ করে কাঁচামাল ব্যবসায়ীদের বেশী ক্ষতি হচ্ছে।
ভোমরা স্থল বন্দরের সহকারী কমিশনার রেজাউল হক জানান, এ ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। তারা যথারীতি অফিস খুলে তাদের সকল অফিসিয়াল কার্যক্রম চালাচ্ছেন। তবে, আজও পণ্যবাহি কোন পরিবহন আজও প্রবেশ করেনি বাংলাদেশে। ##