আপডেট : সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দর শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার


398 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
আপডেট : সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দর শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার
অক্টোবর ১৭, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান :
ন্যায্য মজুরীরর দাবীতে সাতক্ষীরা ভোমরা স্থল বন্দরের চারটি শ্রমিক ইউনিয়ন একযোগে আজ শনিবার সকাল থেকে কর্মবিরতি পালন করার বিকেলে তা প্রত্যাহার করে নেয়। ফলে বন্দরের কয়েক ৪/৫ ঘন্টা সকল প্রকার আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম কার্যত অচল হয়ে পড়েছে। এ সময় বিপাকে পড়ে ব্যবসায়ীরা।

এরপর ভোমরা স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষে সহকারী পরিচালক পার্থ ঘোষ শ্রমিকদের দাবী মেনে নেয়ার আশ্বাস দিলে তারা তা প্রত্যাহার করে নেয়।

ভোমরা স্থল বন্দর হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক মাসুদ হোসেন জানান, পন্যবাহী ট্রাক প্রতি লোড ও আনলোডের ক্ষেত্রে শ্রমিকদের ৫০০ টাকা দেয়ার নির্দেশনা থাকলেও  ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এস আই এস লজিষ্টিক্যাল সিষ্টেম ( জেভি) এর স্বত্বাধিকারী মনিরুজ্জামান শাহীন সেটি বাস্তবায়ন না করে শ্রমিকদের গাড়ি প্রতি মাত্র ১৪০ টাকা হারে প্রদান করেন। তিনি আরো জানান, এ প্রসঙ্গে চলতি বছরের প্রথম দিকে তিনি (মাসুদ হোসেন) বাদী হয়ে হাইকোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন। হাইকোর্ট চলতিমাসের ৬ অক্টোবর তাদের পক্ষে রায়ও দিয়েছেন। এরপরও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আদালতের নির্দেশ অমান্য করে পূর্বের ১৪০ টাকা হারে শ্রমিকদের প্রদান করছেন।

এছাড়া  ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান তাদের পাওনা টাকা পরিশোধ না করেও পরিশোধ করা হয়েছে এই মর্মে শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের স্বাক্ষর জাল করে বন্দর চেয়াম্যানের নিকট একটি পত্র প্রেরন করেন। বিষয়টি জানা জানির এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ৬ অক্টোবর বন্দর সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরে চিঠি দিয়ে ১৫ অক্টোবর এর মধ্যে বিষয়টি নিষ্পত্তি করার জন্য শর্ত দেন। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়ায় বন্দর সংশ্লিষ্ট চারটি শ্রমিক ইউনিয়ন একযোগে আজ শনিবার সকাল থেকে তাদের কর্মবিরতি পালন শুরু  করে। পরে বিকেলে ভোমরা স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষে সহকারী পরিচালক পার্থ ঘোষ আগামী নয় দিনের মধ্যে শ্রমিকদের সকল দাবী মেনে নেয়ার আশ্বাস দিলে কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে নেয়া হয়।

ভোমরা স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষে সহকারী পরিচালক পার্থ ঘোষ এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।